৩ জুনের টিকিট নিয়ে হাহাকার

৩ জুনের টিকিট নিয়ে হাহাকার

পবিত্র ঈদুল ফিতর উপলক্ষে পরিবারের সাথে ঈদ করতেই হবে। সে জন্যইতো খুব ভোরে এখানে এসে লাইনে দাঁড়িয়েছি টিকিটের জন্য। কিন্তু সকাল সকাল এসেও ৩ তারিখের টিকিট পাচ্ছি না।’

এমন কথা বলছিলেন এস এম ইমরান। পেশায় ছাত্র। পাশাপাশি পার্টটাইম চাকরিও করেন। তাইতো ঈদের আগে ৩ তারিখে ছুটি পাবেন বলে ওই দিনই ঝালকাঠি যাবেন তিনি। কিন্তু ৩ তারিখের টিকিট নেই বলে দুশ্চিন্তায় পড়েছেন।

রাজধানীর গাবতলীর সাকুরা বাস কাউন্টারে এসে লাইনে দাঁড়িয়ে ইমরান দেখেন অগ্রিম টিকেট বিক্রি শুরু হওয়ার এক ঘণ্টার মধ্যেই ৩ জুনের সকল টিকেট বিক্রি শেষ হয়ে গেছে।

শুক্রবার সকাল থেকে ঈদের অগ্রিম টিকিট বিক্রি শুরু হয়েছে। ৩০ তারিখ এবং ৩ তারিখ টিকিটের সবচেয়ে বেশি চাপ লক্ষ্য করা গেছে।

সাকুরা পরিবহনের কাউন্টার ম্যানেজার মো মাইনুল ইসলাম বলেন, ‘ইতোমধ্যে তিন তারিখের সকল রুটের টিকিট শেষ হয়ে গেছে। সকাল থেকে অনেক দীর্ঘলাইন লক্ষ্য করা গেছে। যারাই আসছেন তাদের মধ্যে অধিকাংশের চাহিদা ৩ তারিখের টিকিটের। তাই সবার আগে তিন তারিখের টিকিট শেষ।’

তিনি বলেন, ‘ঈদের সময় আমাদের যে কয়টা রুট আছে সকল রুটেই গাড়ির সংখ্যা বাড়ানো হবে। কারণ তখন যাত্রীদের চাপ বেশি থাকে। কিন্তু যাত্রী অনুযায়ী গাড়ির সংখ্যা অনেক কম। আর একজন যাত্রী পাঁচ-ছয়টা করে টিকিট নিচ্ছেন, তাই টিকিট শেষ হয়ে গেছে। ’

এদিকে, অনেককেই আবার ৩ জুনের টিকিট পেয়ে আনন্দ করতে দেখা গেছে। যারা তিন তারিখের টিকিট পেয়েছেন তারা হাসিমুখে স্থান ত্যাগ করছেন। আর যারা পাননি তারা চেষ্টা করছেন একটু বেশি দাম দিয়ে হলেও ওই দিনের টিকিট পাওয়া যায় কি না।

সুত্রঃ রাইজিংবিডি

আপনার মতামত লিখুনঃ