হাতে ১৪ সেলাই নিয়েও খেলতে চান মাশরাফি

হাতে ১৪ সেলাই, তবু খেলতে চান মাশরাফি
রক্তভেজা হাত নিয়ে মাঠ ছাড়েন মাশরাফি

এফএনএস॥ বয়স ৩৬ বসন্ত পেরিয়েছে। দুরন্তপনা এখনও কমেনি মাশরাফি বিন মর্তুজার। ক্যারিয়ারের সায়াহ্নে দাঁড়িয়ে এখনও মাঠে যেন টগবগে এক তরুণ। দলের জন্য শতভাগ নিংড়ে দেওয়া চাই, যাক না তা শরীরের ওপর দিয়ে!

বিপিএলে শনিবার রাতে খুলনা টাইগার্সের বিপক্ষে খেলতে গিয়ে আত্মঘাতী এক ডাইভ দিয়ে বসেন মাশরাফি। মাঠেই বল লেগে হাত ফেটে চৌচির। রক্তভেজা হাত নিয়ে মাঠ ছাড়েন ঢাকা প্লাটুনের অধিনায়ক। পরে বাঁ হাতের তালুতে পড়েছে ১৪টি সেলাই।

কিন্তু মাশরাফি নাকি ওই হাত নিয়েই খেলতে চান পরের ম্যাচটা। চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্সের বিপক্ষে প্লে-অফে যে ম্যাচটা ঢাকার বাঁচামরার লড়াই, সে ম্যাচে মাঠের বাইরে বসে থাকতে রাজি নন নড়াইল এক্সপ্রেস। রাতে সেলাই দেওয়ার সময়ই নাকি বলছিলেন, পরের ম্যাচটা খেলতে চাই।

মাশরাফির এমন কথা শুনে ঢাকাও পড়েছে দো-টানায়। ঢাকার ম্যানেজার আহসানউল্লাহ হাসান বলেন, সে খেলতে ভীষণ ইচ্ছুক। আমরা বুঝতে পারছি না কী করব। দৃঢ় মনোবলে সে বলছে, খেলবে। জানেনই তো মাশরাফি একজন লড়াকু মানুষ।

এখন বিষয়টি তার ওপর ছেড়ে দিয়েছি। মাশরাফি তো মানুষটাই এমন, নিজের কথা ভাবেন না কখনই। কিন্তু হাতের যে অবস্থা, তাতে তাকে বিশ্রামে থাকারই পরামর্শ দিয়েছেন চিকিৎসকরা। আর এ ধরনের চোট থেকে সেরে উঠতেও এক সপ্তাহ লাগে। কমপক্ষে তিনদিন মাঠে নামাই বারণ।

কিন্তু মাশরাফি বারবারই বলে চলেছেন, ম্যাচটা তিনি খেলবেন। যদি ঢাকা অধিনায়ক নিজের এই সিদ্ধান্ত থেকে সরে না আসেন, তবে চিকিৎসকদের তো বিকল্প ব্যবস্থা করতেই হবে।

বিসিবির চিকিৎসক দেবাশীষ চৌধুরী জানালেন, খুব বেশি করে চাইলে প্রয়োজনে বিকল্প ব্যবস্থা করে দেয়া হবে। দেখা যাক, শেষ পর্যন্ত কি হয়। মাশরাফি যেমন পাগলাটে প্রকৃতির, সব কিছু অগ্রাহ্য করে ১৪ সেলাই নিয়েই মাঠে নেমেও পড়তে পারেন।

আরো পড়ুন:

আপনার মতামত লিখুনঃ