সৈয়দপুর আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর দ্রুত বাস্তবায়নের দাবিতে সর্বস্তরের মানুষের মানববন্ধন

সৈয়দপুর আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর দ্রুত বাস্তবায়নের দাবিতে সর্বস্তরের মানুষের মানববন্ধন
সৈয়দপুর আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর দ্রুত বাস্তবায়নের দাবিতে সর্বস্তরের মানুষের মানববন্ধন

সৈয়দপুর আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর দ্রুত বাস্তবায়নের দাবিতে সর্বস্তরের মানুষের মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করা হয়েছে। গত ৭ এপ্রিল বিকাল ৩ টা থেকে ৫ টা পর্যন্ত চলা এ মানববন্ধন কর্মসূচিতে সর্বস্তরের মানুষ ব্যানারসহ অংশ নেয়। এ সময় গোটা সৈয়দপুর শহর মানুষের ভিরে জনসমুদ্রে পরিণত হয়। তাদের একটাই দাবি মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর দেয়া প্রতিশ্রুতি সৈয়দপুর আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর দ্রুত বাস্তবায়ন চাই। শহরের পুলিশ বক্স থেকে ডাকবাংলো মোড় পয়েন্টে এ মানববন্ধনে অংশ নেয় বাঙালিপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ, পৌর আওয়ামী লীগের ৪টি ওয়ার্ড, উপজেলা ও পৌর যুবলীগ, উপজেলা ও পৌর স্বেচ্ছাসেবক লীগ, সকল ক্রীড়া সংগঠন, উর্দুভাষী ক্যাম্প ও সাংস্কৃতিক সংগঠনগুলো। স্মৃতি অম্লাত চত্তর থেকে মদিনা মোড় পয়েন্টে ৮টি ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ, রেলওয়ে সকল শ্রমিক সংগঠন, সকল স্কাউট, মুক্তিযোদ্ধা সংসদ, মুক্তিযোদ্ধা সন্তান কমান্ড।

মদিনা মোড় থেকে পৌর মোড় পয়েন্টে পৌ আওয়ামী লীগের ৩টি ওয়ার্ড, বোতলাগাড়ী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ, উপজেলা ও পৌর কৃষক লীগ, তাতী লীগ, মৎস্যজীবী লীগ, জুট প্রেস এন্ড বেলিং শ্রমিক ইউনিয়ন, শহীদ কুদরত স্মৃতি সংসদ ও প্রজন্ম ৭১। মদিনা মোড় থেকে পুলিশ বক্স মোড় পয়েন্টে মহিলা আওয়ামী লীগ, পৌর ও উপজেলা ছাত্রলীগ এবং ব্যবসায়ীবৃন্দ। পুলিশ বক্স থেকে সৈয়দপুর পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় পর্যন্ত কামারপুকুর, কাশিরাম বেলপুকুর ও খাতামধুপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ, মটর পরিবহন শ্রমিক ইউনিয়ন ও বঙ্গবন্ধু সড়ক ব্যবসায়ী সংগঠন। সৈয়দপুর প্রেস ক্লাব থেকে মদিনা মোড় পয়েন্টে সৈয়দপুর প্রেস ক্লাব, বাংলাদেশ মানবাধিকার কমিশন, জাতীয় পার্টিসহ অন্যান্য সংগঠন। সৈয়দপুর আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর দ্রুত বাস্তবায়ন কমিটির আয়োজনে এ মানববন্ধন কর্মসূচি পালিত হয়।

এ সময় বক্তব্য বলেন, ওই কমিটির আহ্বায়ক সৈয়দপুর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মোখছেদুল মোমিন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আখতার হোসেন বাদল, পৌর আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি রফিকুল ইসলাম বাবু, সাধারণ সম্পাদক মোজাম্মেল হক, বণিক সমিতির সভাপতি ইদ্রিস আলীসহ অনেকে। প্রেস ক্লাব পয়েন্টে পরিচালনার দায়িত্বে ছিলেন আব্দুল হাফিজ হাপ্পু ও অন্যান্য পয়েন্টগুলোতে দায়িত্ব পালন করেন মো. ইলিয়াছ হোসেন, জোবায়দুর রহমান শাহিন, হাবিবুর রহমান রাজা, রাহাত, মহসিন মন্ডল মিঠু, মোস্তফা ফিরোজ, আসাদুল ইসলাম আসাদ, রঞ্জিত, মানিক, মমতাজ প্রমুখ। বাংলাদেশ মানবাধিকার কমিশনের ব্যানারে নেতৃত্বে দেন সভাপতি সাংবাদিক ওবায়দুল ইসলাম, যুগ্ম সম্পাদক এহসানুল হক মিলন, প্রচার সম্পাদক কাজী গোলাম আব্দুল কাদের, তথ্য সম্পাদক ডা. জাবেদ ইকবাল, সদস্য রাশেদ-উন-নবীসহ অনেকে।

আপনার মতামত লিখুনঃ