সকলের সচেতনতাই রোধ করতে পারে সড়কের দুর্ঘটনা- রংপুরের পুলিশ সুপার

সকলের সচেতনতাই রোধ করতে পারে সড়কের দুর্ঘটনা- রংপুরের পুলিশ সুপার
সকলের সচেতনতাই রোধ করতে পারে সড়কের দুর্ঘটনা- রংপুরের পুলিশ সুপার

এফএনএস মমিনুল ইসলাম রিপন: রংপুর ১৭ এপ্রিল ॥
রংপুরের পুলিশ সুপার মিজানুর রহমান বলেছেন, একটি দুর্ঘটনা সারা জীবনের কান্না। এ কান্না থামাতে হবে। সকলের সচেতনতাই রোধ করতে পারে সড়কের দুর্ঘটনা। চালক, যাত্রী উভয়ে যদি ট্রাফিক আইন মেনে চলে তাহলে দুর্ঘটনা অনেক হ্রাস পাবে। প্রাণহানি কমে যাবে।

গতকাল ট্রাফিক পক্ষ উপলক্ষে জেলা পুলিশ আয়োজিত রংপুর পুলিশ লাইন্স হল রুমে এক সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন। গত ১৬ এপ্রিল থেকে ট্রাফিক পক্ষ শুরু হয়েছে। এটি চলবে ৩০ এপ্রিল পর্যন্ত।
পুলিশ সুপার উপস্থিত সকলের উদ্দেশ্যে বলে, ধারণ ক্ষমতার অতিরিক্ত যাত্রি যে সব পরিবহণ বহণ করে সেই সব পরিবহনের উঠবেন না। চালক যদি যানবাহন চলাচলের সময় মোবাইল ফোন ব্যবহার করে তাহলে তাকে সর্তক করবেন। চালকের নিদ্রা এলে গাড়ি থামিয়ে তাকে সচেতন করতে হবে।

পুলিশ লাইন্স স্কুল এন্ড কলেজের অধক্ষ্য প্রফসর ড. জালাল উদ্দিন আকবরের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আবু মারুফ হোসেন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ফজলে এলাহী। স্বাগত বক্তব্য রাখেন রংপুর ট্রাফিক ইনচার্জ খান মেহাম্মদ মিজানুর ফাহমী। এছাড়াও বক্তব্য রাখেন ট্রাফিক ইনচার্জ-২ ফিরোজ মাহামুদ।
ট্রাফিক পক্ষ উপলক্ষে বিভিন্ন লিফলেট, পোস্টার, পুস্তিকা বিতরণ করা হয়। সভায় শিক্ষার্থীরাও অংশ গ্রহণ করেন।