শুক্রাণুর সংখ্যা বাড়ায় যে সাপ্লিমেন্ট

শুক্রাণুর সংখ্যা বাড়ায় যে সাপ্লিমেন্ট

স্বাস্থ্যঃ একটি নতুন গবেষণায় বলা হয়েছে, ফিশ অয়েল সাপ্লিমেন্ট শুক্রাণুর সংখ্যা বাড়ায়। শুধু তাই নয়, এ সাপ্লিমেন্ট শুক্রাণুর স্বাস্থ্যের অন্যান্য দিকও উন্নত করতে পারে।

যেসব তরুণ ফিশ অয়েল সাপ্লিমেন্ট সেবন করেছেন তাদের শুক্রাণুর সংখ্যা ও বীর্যের ঘনত্ব বৃদ্ধি পেয়েছিল।

গবেষকরা বাধ্যতামূলক সামরিক সেবার জন্য শারীরিক পরীক্ষায় অংশ নেয়া ১,৬৭৯ জন ডেনিশ পুরুষের উপাত্ত বিশ্লেষণ করেন।

এসব পুরুষদের গড় বয়স ছিল ১৯ বছর। তাদের মধ্যে ৯৮ জন জানান যে তারা গত দুই বা তিনমাস ধরে ফিশ অয়েল সাপ্লিমেন্ট খেয়ে আসছেন।

তাদের শুক্রাণু কোষের স্বাভাবিকতা ও বীর্যের পরিমাণ ফিশ অয়েল সাপ্লিমেন্ট সেবন না করা পুরুষদের তুলনায় বেশি ছিল।

এছাড়া তাদের ফলিকল-স্টিমিউলেটিং হরমোন ও লুটেনাইজিং হরমোনের মাত্রা কম ছিল- উভয়েই অণ্ডকোষের ভালো কার্যক্রমের নির্দেশক।

এসব হরমোনের মাত্রা বেড়ে গেলে অণ্ডকোষের কার্যক্রম ব্যাহত হয় তথা শুক্রাণুর স্বাস্থ্যে নেতিবাচক প্রভাব পড়ে।

ফিশ অয়েল সাপ্লিমেন্টের ডোজ-রেসপন্স ইফেক্টও পাওয়া গেছে:

যেসব পুরুষ ৬০ দিনের বেশি সময় ধরে এ সাপ্লিমেন্ট খেয়েছেন তাদের অণ্ডকোষের কার্যক্রম এর চেয়ে কম সময় ধরে সেবন করে আসা পুরুষদের তুলনায় ভালো ছিল।

অর্থাৎ দীর্ঘসময় ধরে ফিশ অয়েল সাপ্লিমেন্ট খেয়ে শুক্রাণুর স্বাস্থ্যের ওপর ইতিবাচক প্রভাবের মাত্রা বাড়ানো যেতে পারে।

এ গবেষণার পুরুষদের অ্যালকোহল সেবনের অভ্যাস, ধূমপানের অভ্যাস ও যৌনবাহিত রোগ ছিল না।

তাদের বয়স, খাদ্যতালিকা ও অন্যান্য প্রয়োজনীয় ফ্যাক্টরকেও বিবেচনায় রাখা হয়।

গবেষণাটি জেএএমএ ওপেন নেটওয়ার্কে প্রকাশিত হয়েছে।

এ গবেষণার বিজ্ঞানীরা ফিশ অয়েল ব্যতীত অন্যান্য সাপ্লিমেন্ট (ভিটামিন সি, ভিটামিন ডি ও মাল্টিভিটামিন) সেবন করেছেন এমন পুরুষদের মধ্যে এ ধরনের বিস্ময়কর প্রতিক্রিয়া খুঁজে পাননি।

কোপেনহেগেন ইউনিভার্সিটি হসপিটালে কর্মরত এ গবেষণার প্রধান লেখক ডা. টিনা কল্ড জেনসেন বলেন।

এ গবেষণার ফলাফল সম্পর্কে পুরো শতাংশে নিশ্চিত হতে আরো গবেষণা চালাতে হবে।

কিন্তু আমরা প্রায় নিশ্চিতভাবে ধরে নিয়েছি যে, ফিশ অয়েল সাপ্লিমেন্ট খেলে শুক্রাণুর সংখ্যা বাড়ায়।

তাই আমি সেসব পুরুষদেরকে এ সাপ্লিমেন্ট সেবনের পরামর্শ দিচ্ছি যাদের ডায়েটে মাছের ঘাটতি রয়েছে।

ফিশ অয়েল সাপ্লিমেন্ট বিপজ্জনক নয় এবং এটি হার্ট-রক্তনালীর স্বাস্থ্যও উন্নত করতে পারে।

তথ্যসূত্র : নিউ ইয়র্ক টাইমস

আরও পড়ুন

আপনার মতামত লিখুনঃ