রংপুর-৩ আসন : জাপা চাইলে বিবেচনা করবে আ.লীগ

রংপুর-৩ আসন : জাপা চাইলে বিবেচনা করবে আ.লীগ

প্রয়াত এইচ এম এরশাদের মৃত্যুতে শূন্য হওয়া রংপুর-৩ আসনটি ছেড়ে দেয়ার বিষয়টি জাতীয় পার্টি চাইলে আওয়ামী লী‌গ বিবেচনা করতে পারে বলে জানিয়েছেন দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।

বৃহস্পতিবার বনানীর সেতু ভবনে পদ্মা সেতুর রক্ষণাবেক্ষণে কোরিয়া এক্সপ্রেসওয়ে করপোরেশনের সঙ্গে চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠান শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এ কথা বলেন তিনি।

রংপুর-৩ আস‌ন আওয়ামী লী‌গ জাতীয় পার্টিকে ছেড়ে দিবে কি না জানতে চাইলে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘রংপুরের আসনটি আসলে জোটের নিয়ম অনুযায়ী জাতীয় পার্টির ছিলো, এরশাদ সাহেবের আসন মনোনীত। জোটগত সিট বণ্টনে এটা জাতীয় পার্টির ছিল। এখন জাতীয় পার্টি সংসদে বিরোধী দলের আসনে। এখন তারা স্বতন্ত্র ভাবে নির্বাচনে আসলে আসতে পারে, সেটা তাদের ব্যাপার।’

“আর যদি জোট গত ভাবে আমাদের কাছে আসন্টি চেয়ে বলেন, ‘সেটা আমাদের দেওয়া হোক। জোটে এই আসনটি আমাদের ছিল। তখন আমরা বিবেচনা করবো।’ এই মুহূর্তে আমাদের প্রার্থী আছে।

যতক্ষণ না পর্যন্ত আলোচনা না হয়, ততক্ষণ পর্যন্ত কিছু বলা যাচ্ছে না। আলাপ আলোচনা করে এই মুহূর্তে কোন সিদ্ধান্ত আসে নি। তারাও কোন আবেদন করেন নি। তাই এই ব্যাপারে কিছু বলা যাচ্ছে না।”

মহাসড়কের চাঁদাবাজির পাশাপাশি টোল আদায় বাড়তি ভোগান্তির কারণ হবে কি না জানতে চাইলে মন্ত্রী বলেন, ‘আগে যেতেন চার ঘন্টায় এখন যাচ্ছেন তিন ঘন্টায়, সময় বাঁচবে। এখানে লসের কোন কারণ নেই। আর সমযোতা স্মারক স্বাক্ষর হলো, এটা চুক্তি পর্যন্ত গড়াতে অনেক সময় লাগবে।

এখনও টোলের বিষয়টি নির্ধারণই হয় নি। কাজেই এটা ডাবল কি ট্রিপল হবে কি করে এটা অনুমান করে লিখবো। টোল নির্ধারণের প্রথমিক কোন আলাপ আলোচনা পর্যন্ত হয় নি। কাজেই এ নিয়ে আগাম মন্তব্যের কোন কারণ নেই।’

টোল নিয়ে বিএনপির অভিযোগের জবাবে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘মহাসড়ক করার কোন অভিজ্ঞতা তো বিএনপির নেই। যখন ক্ষমতায় ছিল তখন চার লেনের কোন রাস্তাই ছিল না। পদ্মাসেতু, মেট্রোরেল এ সব তারা স্বপ্নেও দেখে নি। এ দেশে সড়ক অবকাঠামোর যে উন্নয়ন হয়েছে, এ সবের বিষয় তাদের কোন অভিজ্ঞতা নেই।’

তিনি আরো বলেন, ‘অন্যান্য দেশে যে টোল আদায় হয় এটা তারা জেনেও না জানার ভান ধরছে। রাস্তা করতে হলে তো রাস্তা ব্যবহার উপযোগী রাখতে হয়, রাস্তার মেন্টেইনেন্স আছে।’

আপনার মতামত লিখুনঃ