যশোরে বহুতল ভবনে অগ্নিনির্বাপন ব্যবস্থা নেই

যশোরে বহুতল ভবনে অগ্নিনির্বাপন ব্যবস্থা নেই
যশোরে বহুতল ভবনে অগ্নিনির্বাপন ব্যবস্থা নেই

অসংখ্য বহুতল ভবনের শহর এখন যশোর। অথচ এসব বহুতল ভবনের অগ্নিনির্বাপন ব্যবস্থা নেই এখানের ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের। এ শহরে রয়েছে দশতলার অধিক অনেক ভবন। এ ভবনগুলো অগ্নিঝুঁকিতে রয়েছে। কেননা ভবনগুলোর অগ্নিনির্বাপন ব্যবস্থাপনা যেমন দুর্বল, তেমনি যশোর ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স কর্তৃপক্ষের নেই বহুতল ভবনে আগুন নিয়ন্ত্রণের কোন সরঞ্জাম।

যশোর ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স দফতরের উপপরিচালক ওয়াদুদ হোসেন বলেন, ‘আমাদের এমুহূর্তে বহুতল ভবনের আগুন নিয়ন্ত্রণ ও উদ্ধার কার্যক্রমের সরঞ্জাম নেই। এ কারণে ভবন কর্তৃপক্ষকে সচেতন করার জন্য ও তাদের অগ্নিকান্ড প্রতিরোধ ব্যবস্থা যাচাইয়ে আমরা অভিযান চালাচ্ছি।’

যশোরের শেখ হাসিনা আইসিটি পার্কের অগ্নিকান্ড প্রতিরোধ ব্যবস্থা পর্যবেক্ষণে গিয়ে বৃহস্পতিবার যশোর ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের কর্মকর্তারা বিস্ময় প্রকাশ করেন। তারা দেখেন সব কিছু থাকলেও সেগুলো ব্যবহার উপযোগী নয়। ওয়াদুদ হোসেন বলেন, ‘আইসিটি পার্কে অগ্নিকান্ড প্রতিরোধের সরঞ্জামাদি আছে তবে সেগুলো কার্যকর নয়। এ মুহূর্তে এ ভবনটি অগ্নিকান্ডের জন্য ঝুঁকিপূর্ণ।’

আইসিটি পার্কের প্রকল্প ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষ টেকাসিটি বাংলাদেশের সহব্যবস্থাপক শাহরিয়ার বিশ্বাস বলেন, ‘অগ্নিকান্ড প্রতিরোধ ব্যবস্থাপনার দুর্বলতার বিষয়ে তারা অনেক আগেই আইসিটি পার্ক কর্তৃপক্ষকে জানিয়েছেন। এমনকি বিষয়টি পর্যবেক্ষণের জন্য যশোর ফায়ার সার্ভিস কর্তৃপক্ষকেও জানানো হয়েছে।’ এদিকে বহুতল ভবনে অগ্নিকান্ড প্রতিরোধ ব্যবস্থার এমন দুর্বলতা সেখানকার বাসিন্দাদের উদ্বিগ্ন করে তুলেছে।