মেহেদি-ইয়াসিন-আবু হায়দার যে কারণে না খেলেই বাদ

মেহেদি-ইয়াসিন-আবু হায়দার যে কারণে না খেলেই বাদ

ইয়াসিন আরাফাতের চোট। মেহেদি হাসান ও আবু হায়দার ছিলেন মূলত বিকল্প, খেলানোর ভাবনাই ছিল না। ম্যাচ না খেলেই এই তিন জনের বাদ পড়াকে তাই স্বাভাবিক বলেই মনে করেন প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদীন।

ত্রিদেশীয় টি-টোয়েন্টি সিরিজের প্রথম দুই ম্যাচের বাংলাদেশ দলে ফিরেছিলেন অলরাউন্ডার মেহেদি হাসান। সেই দলেই বড় চমক ছিল পেসার ইয়াসিনের জায়গা পাওয়া। আর আফগানিস্তানের বিপক্ষে দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টির আগে হুট করেই দলে নেওয়া হয়েছিল বাঁহাতি পেসার আবু হায়দারকে।

কিন্তু এই তিন জন জায়গা পাননি টুর্নামেন্টের চট্টগ্রাম পর্বের বাংলাদেশ দলে।
মেহেদি হাসান মেহেদি হাসান ম্যাচ না খেলেই বাদ পড়া অনেক ক্রিকেট খেলুড়ে দেশে বড় ঘটনা হলেও বাংলাদেশে বিরল নয় মোটেও। এবারও নির্বাচকেরা হেঁটেছেন সেই পথে। প্রধান নির্বাচক জানালেন ওই তিন জনের বাদ পড়ার কারণ।

“ইয়াসিনের তো ইনজুরি। পিঠে আর পাঁজরে ব্যাথা। ওকে রাখার উপায় ছিল না। আফগানিস্তানের বিপক্ষে ম্যাচের আগে ইয়াসিনের ইনজুরির কারণেই কাভার হিসেবে রনিকে (আবু হায়দার) নেওয়া হয়েছিল। ম্যাচের দিন কোনো পেসার হুট করে ইনজুরিতে পড়তে পারত। সেজন্যই বিকল্প হিসেবে রনি ছিল।”

“আর মেহেদিকে নেওয়াই হয়েছিল স্পিনিং অলরাউন্ডারের জায়গয় ব্যাক আপ হিসেবে, যদি কারও ক্ষেত্রে প্রয়োজন হতো। ওদের কারও আসলে সেভাবে খেলার কথা ছিল না। কোচ দেখেছেন। ওদেরকে এখন ‘এ’ দল, এইচপি দলে রাখব।”

আপনার মতামত লিখুনঃ