মেসিকে নিয়ে প্রশ্ন ওঠায় হতাশ ফিফা

মেসিকে নিয়ে প্রশ্ন ওঠায় হতাশ ফিফা

লিওনেল মেসি ‘দ্য বেস্ট ফিফা মেনস প্লেয়ার’ নির্বাচিত হওয়ার পর প্রশ্ন উঠেছে এর ভোটিং প্রক্রিয়া নিয়ে। বার্সেলোনা তারকার পক্ষে সবকিছু আগে থেকে ঠিক করা ছিল বলে অভিযোগ ওঠায় হতাশা প্রকাশ করেছে ফিফা।

বর্ষসেরা নির্বাচনের পুরো প্রক্রিয়াটা বোর্ডের উপর নির্ভর করে না বলেও দাবি ফুটবলের সর্বোচ্চ সংস্থাটির। শুক্রবার এক বিবৃতিতে ভোট দেওয়া ও গণনা প্রক্রিয়ার স্বচ্ছতা নিয়ে নিজেদের অবস্থান তুলে ধরে সংস্থাটি।

মিলানের অপেরা হাউজ লা স্কালায় গত সোমবার ভার্জিল ফন ডাইক ও ক্রিস্তিয়ানো রোনালদোকে পেছনে ফেলে ২০১৯ সালের ফিফা বর্ষসেরা ফুটবলারের পুরস্কার জেতেন ৩২ বছর বয়সী মেসি। এরপর কয়েকটি ফেডারেশনের খেলোয়াড় ও প্রতিনিধিরা দাবি করেন, তাদের ভোট গণনা করা হয়নি বা বদলে দেওয়া হয়েছে।

তবে এসব ভিত্তিহীন বলে বিবৃতি দিয়েছে ফিফা। এমন প্রশ্ন ওঠায় ও তা নিয়ে কয়েকটি গণমাধ্যমে প্রকাশিত প্রতিবেদন দেখে হতাশ প্রকাশ করেছে সংস্থাটি। “এই প্রতিবেদনগুলো পক্ষপাতদুষ্ট ও ভুল তথ্য দিচ্ছে। প্রত্যেকটা পুরস্কারের জন্য ভোট দেওয়া ও গণনা প্রক্রিয়া একটা স্বাধীন সংস্থার দ্বারা তত্ত্বাবধান ও পর্যবেক্ষণ করা হয়।

সদস্য সংস্থাগুলোকে ভোটের ফর্মের ‘হার্ড কপি’ ও একই সঙ্গে তা ইলেকট্রনিক্যালিও পাঠাতে বলা হয়েছিল বলে বিবৃতিতে জানিয়েছে ফিফা। “ভোট দেওয়ার জন্য অনুমোদিত ব্যক্তির স্বাক্ষরের পাশাপাশি লিখিত ফর্মটি অবশ্যই ওই অ্যাসোসিয়েশনের দায়িত্বপ্রাপ্ত ব্যক্তিদের দ্বারাও স্বাক্ষরিত হতে হবে।

“তাই একটা ভোট বৈধ হওয়ার জন্য অবশ্যই প্রয়োজনীয় স্বাক্ষরগুলো ও সদস্য অ্যাসোসিয়েশনটির স্ট্যাম্প সংযুক্ত থাকতে হবে। তারপরও কোনো ধরনের ভুলের ঘটনা ঘটলে এমনকি তা যদি ফলাফলে প্রভাব নাও ফেলে তা তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়ার ঘোষণা দিয়েছে ফিফা।

আপনার মতামত লিখুনঃ