মিঠাপুকুরে আদালতের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে জমিতে বিল্ডিং নির্মাণ

মিঠাপুকুরে আদালতের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে জমিতে বিল্ডিং নির্মাণ
মিঠাপুকুরে আদালতের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে জমিতে বিল্ডিং নির্মাণ
ক্রয়কৃত জমির উপর প্রতিপক্ষ  কতৃক জোর পূর্বক বিল্ডিং  নি্র্মাণ করার অভিযোগ  পাওয়া  গেছে।আদালতের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে  নিরমাণ কাজ চালাতে থাকে সাজু মিয়া।এসময় রেজাউল করিম কাজ বন্ধের জন্য বাধা দিলে সাজু মিয়া হুমকী দেয়।এঘটনায় বতমান ঐএলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছে।
অভিযোগ সুত্রে জানা গেছে,রংপুরের  তাজহাট থানার ধরমদাস বারআউলিয়ার মৃত ছাত্তারের ছেলে রেজাউল করিম মিঠাপুকুরের পায়রাবন্দ ইউনিয়ন এর বিশ্বনাদথপুর গ্রামে হাসেন আলীর নিকট থেকে জমি ক্রয় করে।যার জেএল১৬২সিএস খতিয়ান৭৫ এবং সাবেক দাগ নং  ৩৩০ এর মোট জমি৯৪ শতকের মধ্যে ৬১ শতক জমি।
এদিকে ক্রয়কৃত ঐ জমির ওয়ারিশ  হিসাবে দাবি করে পায়রাবন্দ ইউনিয়নের মৃত  সামছুল এর ছেলে সাজু মিয়া। এই নিয়ে তাদের মধ্যে বিরোধ চলছিল। রেজাউল করিম এবং সাজু সহ তাদের পরিবারের মধ্যে  মামলা চলছে। রেজাউল করিমের আদালতে দায়েরকৃত মামলায় ঐ জমির উপর নিষেধাজ্ঞা দেয় আদালত।
এদিকে বিরোধকৃত জমির উপর  সাজু মিয়া বিল্ডিং  নিরমান কাজ শুরু  করেন।এতে বিল্ডিং এর কাজ বন্ধের জন্য রেজাউল  করিম বাধা দিতে গেলে সাজু সহ তার লোজন ঘটনার দিন শনিবার হুমকী দেয়।এ এঘটনায়  রেজাউল করিম বাদী হয়ে মিঠাপুকুর থানায় অভিযোগ দায়ের করেন।স্থানীয়রা বলছেন,মাদক ব্যবসায়ী সাজুর সাথে রেজাউল এর বিরোধ সমাধান না হলে যে কোন সময় বড় ধরনের ঘটনার আশংকা রয়েছে।
এবিষয়ে সাজুর সাথে কথা হলে তিনি বিল্ডিং নির্মাণকাজের সত্যতা সীকার করে বলেন,অন্যান্য ওয়ারিশ থাকার পরেও এক জনের কাছ থেকে জমি ক্রয় করেছে রেজাউল। আমরাও ঐ জমির ওয়ারিশ।