মানহানির মামলা খাওয়া কিরণ আবারও জিতলেন এএফসিতে

মানহানির মামলা খাওয়া কিরণ আবারও জিতলেন এএফসিতে
মানহানির মামলা খাওয়া কিরণ আবারও জিতলেন এএফসিতে

এফএনএস স্পোর্টস: প্রধানমন্ত্রীকে কটাক্ষ করে বক্তব্য দেওয়ার অভিযোগে গত মাসে মানহানির মামলা খেয়েছেন মাহফুজা আক্তার কিরণ। এ মামলায় গ্রেফতারের পর তাকে কারাগারেও পাঠানো হয়। আবার জামিনে মুক্তিও পান।

এবার ভালো খবর পেলেন মাহফুজা আক্তার কিরণ। এশিয়ান ফুটবল কনফেডারেশনের (এএফসি) কমিটিতে আবারও নির্বাচিত হয়েছেন তিনি। শনিবার মালয়েশিয়ার রাজধানী কুয়ালালামপুরে এএফসির কংগ্রেসে এ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়।

এতে তিনি তার একমাত্র প্রতিদ্বন্দ্বী মালদ্বীপের মরিয়ম মোহামেদকে ৩১-১৫ ভোটে হারিয়েছেন। এই কমিটি ২০২৩ সালের এশিয়ান কাপ কোথায় হবে তার সিদ্ধান্ত নেবে।

এএফসির সভাপতি পদে আগের মেয়াদে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হন বাহরাইনের শেখ সামলান বিন ইব্রাহিম আল খেলাইফি। এবারও তিনি সভাপতি হিসেবে থাকছেন।মাহফুজা আক্তার কিরণ বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের (বাফুফে) নারী ফুটবল কমিটির চেয়ারম্যানের দায়িত্বে রয়েছেন। এ ছাড়া বাফুফের কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য তিনি।

মামলার অভিযোগ থেকে জানা যায়, গত ৮ মার্চ বাফুফে দফতরে এক সংবাদ সম্মেলনে মাহফুজা আক্তার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সম্পর্কে বলেছিলেন, ‘পিএম হিসাবে সব খেলাই তার কাছে সমান। তিনি সেখানে কেন দুই চোখে দেখবেন? মেয়েরা ব্যাক টু চ্যাম্পিয়ন। গিফট তো পরের কথা। অভিনন্দন তো দিতে পারেন তিনি। মিডিয়াতে তিনি কি কোন অভিনন্দন জানিয়েছেন?

মাহফুজা আক্তার আরো বলেন, বিএফএফের টাকা কেন প্রধানমন্ত্রীর হাত দিয়ে দেওয়া হবে? বিএফএফ সরকারের কাছে থেকে কোন ফ্যাসিলিটিজ নেয় না। প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে বিসিবির অনেক স্বার্থ রয়েছে। বিসিবি সরকারের অনেক ফ্যাসিলিটিজ নেয়। চুন থেকে পান খসলেই তারা প্লট পেয়ে যায়, গাড়ি পেয়ে যায়।

এরপর প্রধানমন্ত্রীর পাশাপাশি ফুটবল ও ক্রিকেট সংগঠকদের মানহানি হয়েছে অভিযোগ করে ৫০ কোটি টাকা ক্ষতিপূরণ চেয়ে মামলা করেন বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের সাবেক যুগ্ম সম্পাদক আবু হাসান চৌধুরী প্রিন্স।