মহাত্মা গান্ধীর দেহভস্ম চুরি

মহাত্মা গান্ধীর দেহভস্ম চুরি

ভারতের জাতির জনক মহাত্মা গান্ধীর ১৫০ তম জন্ম বার্ষিকীতে মধ্যপ্রদেশের সংরক্ষণাগার থেকে চুরি গেছে তার দেহভস্ম। পুলিশ একথা জানিয়েছে।

উগ্রপন্থি এক হিন্দুর হাতে ১৯৪৮ সালে গান্ধী নিহত হওয়ার পর তার দেহভস্ম মধ্যপ্রদেশের রেওয়া জেলায় ‘বাপু ভবন’-এ সংরক্ষিত ছিল।

চোরেরা তা চুরি করার পাশাপাশি গান্ধীর ছবির পোস্টারেও ‘দেশদ্রোহী’ কথাটি লিখে গেছে।
হিন্দু ধর্মাবলম্বী হয়েও হিন্দু-মুসলিম ঐক্যের চেষ্টা করার কারণে গান্ধীকে কিছু হিন্দু উগ্রপন্থি ‘দেশদ্রোহী’ হিসেবে বিবেচনা করে।

বাপু ভবন সংরক্ষণাগারের তত্ত্বাবধায়ক মঙ্গলদ্বীপ তিওয়ারি বলেন, “আমি সকাল সকাল ভবনের দরজা খুলে দিয়েছিলাম। কারণ, সেদিন ছিল গান্ধীর জন্মদিন। রাত ১১ টায় ফেরার পর দেখলাম গান্ধীর দেহভস্ম নেই এবং তার পোস্টারও বিকৃত করা হয়েছে।”

স্থানীয় কংগ্রেস নেতা গুরমিত সিং অভিযোগের ভিত্তিতে রেওয়া পুলিশ এর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিয়েছে বলে জানিয়েছে বিবিসি। ঘটনাটির তদন্ত চলছে।

গুরমিত সিং বলেন, “এই পাগলামি বন্ধ করতেই হবে। আমি রেওয়া পুলিশকে বাপু ভবনে থাকা সিসিটিভি ক্যামেরার ফুটেজ পরীক্ষা করে দেখার আহ্বান জানাচ্ছি।”

আপনার মতামত লিখুনঃ