মন্ত্রীদের মধ্যে ‘জমিদারি মনোভাব’: ফখরুল

মন্ত্রীদের মধ্যে ‘জমিদারি মনোভাব’: ফখরুল
মন্ত্রীদের মধ্যে ‘জমিদারি মনোভাব’: ফখরুল

এনএনবি : সরকারবিরোধী আন্দোলন নিয়ে সরকারের মন্ত্রীদের বক্তব্যের সমালোচনা করেছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

জাতীয় প্রেস ক্লাবে শনিবার সকালে এক আলোচনা সভায় তিনি বলেন, “কয়েকদিন ধরে লক্ষ্য করবেন যে, আওয়ামী লীগের মন্ত্রীরা হুমকি দেওয়া শুরু করেছেন- এই ধরনের কর্মসূচি মেনে নেওয়া হবে না, সমুচিৎ জবাব দেওয়া হবে।

“এই হুমকি-ধামকি দিয়েই তো সারাজীবন চললেন। এরা কাউকে সহ্য করতে চায় না। তাদের মানসিকতার মধ্যে আছে- একটা জমিদারি মনোভাব। লর্ডশীপ- আমি সব, আমি ছাড়া আর কেউ নেই।”

খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে বিএনপির আন্দোলনে নামার ঘোষণার প্রতিক্রিয়ায় শুক্রবার ক্ষমতাসীন আওয়ামী আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের হুঁশিয়ার করে দিয়ে বলেছেন, আন্দোলনের নামে নৈরাজ হলে তার ‘সমুচিৎ’ জবাব দেওয়া হবে।
প্রেস ক্লাবের তফাজ্জল হোসেন মানিক মিয়া হলে বাংলাদেশ ন্যাশনাল পিপলস পার্টি ‘বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াসহ সকল রাজবন্দির মুক্তি ও সমসাময়িক রাজনীতি’ শীর্ষক এই আলোচনা সভার আয়োজন করে।

সরকারের সমালোচনা করে ফখরুল বলেন, “আমরা কোথাও সভা করতে চাইলে অনুমতি পাব না, সোহরাওয়ার্দীতে অনুমতি দেবে না। আর দেখেন আওয়ামী লীগের একেবারে এতটুকু সংগঠন মৎস্যজীবী, পেশাজীবীদের সভা চলছে সব সোহরাওয়ার্দীতে। কোটি কোটি টাকা খরচ করে মাসব্যাপী সভা চলছে। আমরা যাতে যেতে না পারি সেটার ব্যবস্থা করেছে।
“এখন তো চলছে উৎসব। আগামীতে জন্মোৎসব হবে, তারপরে আরও কিছু হবে। গোটা পৃথিবী জুড়ে হচ্ছে বাংলাদেশের উৎসব। কার টাকায় করছেন? এসব পাবলিক মানি।”

খালেদা জিয়ার চিকিৎসা নিয়ে তিনি বলেন, “৫ তারিখে রিপোর্ট চেয়েছেন সুপ্রিম কোর্ট। আমরা সারা বাংলাদেশের মানুষ এই প্রত্যাশা করবে পিজির (বিএসএমএমইউ হাসপাতাল) চিকিৎসকরা যারা মেডিকেল বোর্ডের দায়িত্বে আছেন তারা সত্য কথাটা বলবেন। আমরা অন্য কোনো কিছু চাই না। উই ওয়ান্ট দ্য ট্রুথ। অমানবিকতা-প্রতিহিংসার একটা সীমা থাকে। সব সীমা ছাড়িয়ে গেছে।”

আপনার মতামত লিখুনঃ