ভূমি সেবা সপ্তাহ শুরু হচ্ছে আজ

ভূমি সেবা সপ্তাহ শুরু হচ্ছে আজ
ভূমি সেবা সপ্তাহ শুরু হচ্ছে আজ

এফএনএস: ভূমি ব্যবস্থাপনায় দক্ষতা বাড়ানো, গতিশীলতা আনয়ন ও জনসাধারণের মধ্যে ভূমি অধিকার সম্পর্কে সচেতনতা বাড়ানোর উদ্দেশে ভূমি মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগে আজ বুধবার থেকে দেশব্যাপী সপ্তাহব্যাপী ‘ভূমি সেবা সপ্তাহ এবং ভূমি উন্নয়ন কর মেলা’ অনুষ্ঠিত হবে। বুধবার থেকে এই কার্যক্রম শুরু হলেও ভূমিমন্ত্রী সাইফুজ্জামান চৌধুরী আগামীকাল বৃহস্পতিবার কেন্দ্রীয়ভাবে রাজধানীর সেগুনবাগিচায় বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির জাতীয় চিত্রশালা ভবন সংলগ্ন স্থানে সেবা ক্যাম্পের কার্যক্রম উদ্বোধন করবেন। ‘রাখবো নিষ্কণ্টক জমি বাড়ি, করব সবাই ই-নামজারি’ প্রতিপাদ্য নিয়ে দেশের আটটি বিভাগ, ৬৪ জেলা এবং ৫০৭টি উপজেলা/সার্কেল ভূমি অফিসে সেবা ক্যাম্প স্থাপন এবং সেবা দেওয়া হবে।

মন্ত্রণালয়ের জনসংযোগ কর্মকর্তা সৈয়দ মো. আব্দুল্লাহ আল নাহিয়ান বলেন, প্রত্যেক জেলা, উপজেলা, রাজস্ব সার্কেল, ইউনিয়ন ও পৌর ভূমি অফিসে সেবা পাওয়া যাবে। সেবা ক্যাম্পে ডিজিটাল পদ্ধতিতে ঘরে বসে সহজে স্বল্প সময়ে, অনায়াসে ও নির্ধারিত ফি’তে ভূমি সেবা পাওয়ার বিষয়ে অবহিতকরণ করা হবে। দেশের যেকোনো উপজেলা ভূমি অফিসে ই নামজারির আবেদন প্রক্রিয়া প্রদর্শন এবং লিখিত অনুসরণীয় বার্তা এবং ফর্ম দেওয়া হবে। তাৎক্ষণিক ই-নামজারি সেবা দেওয়া, ভূমি উন্নয়ন কর গ্রহণ, খাস জমি বন্দোবস্তের আবেদন গ্রহণ, বন্দোবস্তের কবুলিয়ত দেওয়া, রিভিউ মোকদ্দমার আবেদন গ্রহণ, বিবিধ মোকদ্দমার আবেদন গ্রহণ ও সম্ভাব্য ক্ষেত্রে তাৎক্ষণিক সিদ্ধান্ত দেওয়া হবে।

সেবা ক্যাম্পে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রায় ১৬ লাখ স্কাউটকে ভূমি বিষয়ে প্রাথমিক জ্ঞান দেওয়া হবে। প্রত্যেক স্কাউট দুটি পরিবারকে সচেতন করলে ৩২ লাখ পরিবার সচেতন হবে। সেবা ক্যাম্পে স্কাউটরা তাবু নির্মাণ করবেন এবং ই-নামজারি, ভূমি উন্নয়ন কর আদায়সহ অন্যান্য সেবা প্রদানে প্রত্যক্ষভাবে স্কাউটরা অংশগ্রহণ করবেন।

সেবাগ্রহীতাদের সেবা সম্পর্কিত বিভিন্ন জিজ্ঞাসার জবাব অনলাইনে দেওয়ার জন্য ক্যাম্পে একজন কর্মকর্তা থাকবেন। ‘ভূমি সেবা ও জনগণের প্রত্যাশা’ নামে বিদ্যালয় পর্যায়ে রচনা প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হবে এবং সেরা তিনজনকে পুরস্কার বিতরণ করা হবে। সেসব ব্যাংক সার্টিফিকেট মামলা সংশ্লিষ্ট কাজের সঙ্গে সম্পৃক্ত তাদের কার্যক্রম প্রদর্শন করা হবে। এ ছাড়া জরিপ সংক্রান্ত কার্যক্রম, ভূমি অধিগ্রহণ ও গুচ্ছগ্রাম প্রকল্প কার্যক্রম সম্পর্কে অবহিত করা হবে।

আপনার মতামত লিখুনঃ