ফুলবাড়ীতে জাল দলিল তৈরি করে মুক্তিযোদ্ধার জমি দখল॥

ফুলবাড়ীর পল্লীতে জাল দলিল তৈরি করে মুক্তিযোদ্ধার জমি দখল॥
ফুলবাড়ীর পল্লীতে জাল দলিল তৈরি করে মুক্তিযোদ্ধার জমি দখল॥

মোঃ আফজাল হোসেন ফুলবাড়ী দিনাজপুর প্রতিনিধি
ফুলবাড়ী উপজেলার শিবনগর ইউপির গোপালপুর গ্রামে মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব মোঃ আব্দুস ছালাম এর ১একর ৩৮ শতক জমি ঐ গ্রামের প্রতিপক্ষ মোঃ আব্দুর রহিমগং জাল দলিল তৈরি করে দখল করে নিয়েছে। প্রশাসনের কাছে ধনাদিয়েও কোন প্রতিকার পাচ্ছেনা একই ইউনিয়নের বাগড়া গ্রামের মুক্তিযোদ্ধা মোঃ আব্দুস ছালাম।

দিনাজপুরের ফুলবাড়ী উপজেলার শিবনগর ইউপির বাগড়া গ্রামের মৃত নায়েব উদ্দীনের পুত্র মুক্তিযোদ্ধ মোঃ আব্দুস ছালামের লিখিত অভিযোগে জানা যায়, যে ফুলবাড়ী উপজেলার শিবনগর ইউপি’র গোপালপুর মৌজার ৩০৫ দাগে তার পিতা নায়েব উদ্দিন ২৭/০৩/১৯৭৮ সালে মুক্তিযোদ্ধা আব্দুস ছালাম এর নামে ৩০৫ দাগে ২ একর ১ শতক ও ছোট ছেলে মোঃ সফিকুল ইসলাম এর নামে ৭২ শতক জমি গোপাল পুর গ্রামের মোঃ মোহাম্মাদ আলীর স্ত্রী মোছাঃ জহুরা খাতুন এর নিকট জমি ক্রয় করে ৪০ বৎসর ধরে চাষাবাদ করে আসছেন।

ঐ জমিতে প্রায় শতাধিক বিভিন্ন ফলজ গাছ লাগানো রয়েছে। চলতি বৎসর ঐ জমিতে ভুট্টা আবাদ করেছেন। কিন্তু গোপালপুর মৌজার ঐ গ্রামের মৃত আব্দুল মজিদ এর পুত্র আব্দুর রহিম জাল দলিল তৈরি করে দুই দাগের ১ একর ৩৮ শতক জমি দখল করে নিয়েছেন এবং সেখানে টিনের ঘর তৈরি করে নিজ দখলে রেখেছেন। কিন্তু মুৃক্তিযোদ্ধ আব্দুস ছালামের বাড়ী গোপালপুর গ্রামে থেকে ৩ কি.মি দূরে হওয়ায় ঐ জমি সবসময় দেখাশুনা করা সম্ভাব হচ্ছিল না। এই সুযোগ কে কাজে লাগিয়ে গোপালপুর গ্রামের আব্দুল রহিম গংরা নওগাঁ জেলার মরহুম মফিজ উদ্দিন চৌধুরীর পুত্র মৃত মতিয়ার রহমান চৌধুরী ও তার পুত্র মোঃ মোতলেবুর রহমান চৌধুরীর নিকট ২০/০৯/২০১৮ ইং তারিখে ফুলবাড়ী সাব-রেজিষ্টার অফিসে উক্ত জমি রেজিষ্টী করেন। যাহার দলিল নং ৩৮১৭। এই জমি এখন পর্যন্ত তারা খারিজ খাজনা করে পারে নি। যেহেতু এই জমি মুক্তিযোদ্ধা ও তার ভাই এর।

মুক্তিযোদ্ধা মোঃ আব্দুস ছালাম ৪০ বৎসর ধরে ফুলবাড়ী উপজেলার শিবনগর ইউপি’র ইউনিয়ন ভূমি অফিসে দুই ভাই রিতিমত হাল খাজনা দিয়ে আসছেন। বর্তমান আব্দুর রহিম গং দের বাড়ী ঐ এলাকায় হওয়ায় মুক্তিযোদ্ধার ৭৬ শকত ও তার ভাই এর ৭২ শতক জমিতে লাগানো ভুট্টা কাটার জন্য তৎপর চালাচ্ছে। শিবনগর ইউপি’র চেয়ারম্যান মামুনুর রশিদ বিপ্লব কে মুক্তিযোদ্ধা আব্দুস ছালাম অভিযোগ দিয়েও কোন সুরাহা পাচ্ছেন না।
এদিকে মুক্তিযোদ্ধান আব্দুস ছালাম ন্যায় বিচারের আশায় গত ১২ এপ্রিল শুক্রবার ফুলবাড়ী থানায় আব্দুর রহিম গংদের বিরুদ্ধে একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। এ বিষয়ে মুক্তিযোদ্ধা আব্দুস ছালাম ও তার ভাই সফিকুল ইসলাম ন্যায় বিচারের আশায় প্রশাসনের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেছন।