নোয়াখালীর হাতিয়া-নিঝুম দ্বীপে হচ্ছে বিশেষ পর্যটন জোন

নোয়াখালীর হাতিয়া-নিঝুম দ্বীপে হচ্ছে বিশেষ পর্যটন জোন
নোয়াখালীর হাতিয়া-নিঝুম দ্বীপে হচ্ছে বিশেষ পর্যটন জোন

এফএনএস: নোয়াখালী জেলার হাতিয়া উপজেলা ও নিঝুম দ্বীপকে ঘিরে বিশেষ পর্যটন জোন গড়ে তোলা হচ্ছে। এজন্য প্রায় ৫০ কোটি টাকার ব্যয়ের একটি প্রকল্প হাতে নিয়েছে বে-সামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়।

ইতোমধ্যে ওই প্রকল্প বাস্তবায়নের কাজ শুরু হয়েছে। প্রকল্পের আওতায় ওই অঞ্চলে যাওয়া পর্যটকদের সুবিধার্থে নির্মাণ করা হবে রেস্তোরাঁ, কটেজ এছাড়াও পানিতে ভ্রমণের জন্য থাকবে ক্রুজ ভেসেল।

গতকাল রোববার সংসদ ভবনে অনুষ্ঠিত বে-সামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির বৈঠকে এসব তথ্য জানানো হয়েছে।

সংসদীয় কমিটির সভাপতি র আ ম উবায়দুল মোকতাদির চৌধুরীর সভাপতিত্বে বৈঠকে কমিটির সদস্য বে-সামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন প্রতিমন্ত্রী মো. মাহবুব আলী, ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন, তানভীর ইমাম এবং সৈয়দা রবিনা আক্তার অংশগ্রহণ করেন।

কমিটি সূত্রে জানা যায়, পর্যটন শিল্পের বিকাশে হাতিয়া ও নিঝুম দ্বীপকে ঘিরে নেওয়া প্রকল্প যথাযথভাবে বাস্তবায়নের তাগিদ দেওয়া হয়েছে। একইসঙ্গে হবিগঞ্জ জেলা ও ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার বিজয়নগর এলাকায় ছোট রেস্ট হাউজ নির্মাণসহ পর্যটনকেন্দ্র গড়ে তোলা য়ায় কি না তা পরীক্ষা-নিরীক্ষার জন্য উদ্যোগ নিতে বলা হয়েছে।

এ ছাড়া কক্সবাজার সমুদ্র সৈকত পরিচ্ছন্ন রাখার বিষয়ে ব্যক্তি মালিকানার উদ্যোগে পেশকৃত প্রস্তাব বাস্তবায়নে পদক্ষেপ গ্রহণের সুপারিশ করা হয়।

বৈঠকে জানানো হয়, কক্সবাজারে বাংলাদেশ পর্যটন করপোরেশনের পর্যটন হলিডে কমপ্লেক্সে অবস্থিত হোটেল প্রবাল ও উপালকে পাঁচ তারকা মানের হোটেলে রূপান্তরের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। এ ছাড়া হোটেল লাবনীকে আন্তর্জাতিক মানের হোটেলে উন্নীত করার পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়েছে।