নাশকতার গোপন বৈঠক থেকে পাঁচ শিবির কর্মী গ্রেফতার

নাশকতার গোপন বৈঠক থেকে পাঁচ শিবির কর্মী গ্রেফতার
নাশকতার গোপন বৈঠক থেকে পাঁচ শিবির কর্মী গ্রেফতার

নাশকতামূলক কর্মকান্ড পরিচালনার জন্য গোপনে একত্রিত হওয়া পাঁচ শিবির কর্মীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। তাদের কাছ থেকে ল্যাপটপ, মোবাইলসহ সাংগঠনিক কার্যক্রম পরিচালনার বিপুল পরিমাণ বই, ব্যানার, পোস্টার ও লিফলেট উদ্ধার হয়েছে।

শুক্রবার (২৪ জানুয়ারি) বিকেলে রংপুর মহানগরীর দেওডোবা ডাঙ্গিরপাড় থেকে তাদের গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতার শিবিরকর্মীরা উত্তরবঙ্গের বিভিন্ন জেলা থেকে রংপুরে একত্রিত হয়েছিলেন।

শুক্রবার সন্ধ্যায় কোতয়ালী থানায় প্রেস ব্রিফিংয়ে গ্রেফতারের বিষয়টি নিশ্চিত করেন আরপিএমপির উপ-পুলিশ কমিশনার (অপরাধ) কাজী মুত্তাকী ইবনু মিনান।

তিনি সাংবাদিকদের জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে কোতয়ালী থানা পুলিশ নগরীর দেওডোবা ডাঙ্গিরপাড় এলাকার ইন্সুরেন্স কোম্পানীতে চাকরিরত মাসুদার রহমানের তিনতলা বাসায় অভিযান চালানো হয়।

এসময় বাসার দ্বিতীয় তলায় গোপন বৈঠক থেকে পাঁচ শিবির কর্মীকে গ্রেফতার করা হয়। অভিযানের সময় মাসুদার রহমান বাসায় ছিলেন। তাদের কাছ থেকে ল্যাপটপ ও মোবাইল ফোনসহ বিপুল পরিমাণ ব্যানার, পোস্টার, ফেস্টুন, লিফলেট, চাঁদা আদায় রশিদ, সাংগঠনিক বই উদ্ধার হয়।

গ্রেফতাররা হলেন; সিরাজগঞ্জ উল্লাপাড়ার মেহেদি হাসান (২৩), কুড়িগ্রাম রাজারহাটের সাজ্জাদুর রহমান (২০), লালমনিরহাট সদরের নোমান সরকার (২৩), রংপুর পীরগাছার হাদিসুর রহমান (২০) ও বগুড়া সদরের রাফি ইবনে জামান (২৭)।

উপ-পুলিশ কমিশনার আরো জানান, গ্রেফতার শিবির কর্মীরা নিজ এলাকা ছেড়ে দীর্ঘদিন থেকে আত্মগোপনে থেকে সাংগঠনিক কার্যক্রম পরিচালনার পাশাপাশি নাশকতার পরিকল্পনা করে আসছে।

প্রেসব্রিফিংয়ে উপস্থিত ছিলেন- আরপিএমপির অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার (অপরাধ) শহিদুল্লাহ কাওছার, সহকারি পুলিশ কমিশনার (কোতয়ালী জোন) জমির উদ্দিন, কোতয়ালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুর রশিদ প্রমুখ।