নভেম্বরে জাপান থেকে দেশে আসবে মেট্রোরেল

নভেম্বরে জাপান থেকে দেশে আসবে মেট্রোরেল
নভেম্বরে জাপান থেকে দেশে আসবে মেট্রোরেল

এনএনবি : ২০২০ সালের মধ্যে রাজধানীর আগারগাঁও থেকে মতিঝিল পর্যন্ত মেট্রোরেল চালুর লক্ষ্যে কাজ চলছে। প্রকল্প সংশ্লিষ্টরা জানান, এ লক্ষ্যে ২০১৯ সালের মধ্যেই শেষ করা হবে রেললাইন স্থাপনের ভায়াডাক্ট স্থাপনসহ পূর্ত কাজের পুরো অংশ। এদিকে রাজধানীর প্রাণকেন্দ্রে এ নির্মাণ কাজের কারণে ভোগান্তি যেন না বাড়ে সে লক্ষ্যে নতুন পরিকল্পনা নিয়ে এগোচ্ছে কর্তৃপক্ষ।

দিন কি রাত। শুধু কাজ আর কাজ। প্রথম ধাপে এরই মধ্যে দৃশ্যমান হয়েছে রেললাইনের ৩ কিলোমিটার ভায়াডাক্ট। জোরেশোরেই চলছে মেট্রোরেলের দ্বিতীয় ধাপ আগারগাঁও থেকে মতিঝিল অংশের কাজও।
মেট্রোরেল প্রকল্পের কর্মীরা বলেন, ‘কাজ ২৪ ঘণ্টা চলে। রাত্রে লাইটে লাগিয়ে মেশিনের সাহায্যে সব কাজ করা হয়।’

মেট্রো রেলের ২০ কিলোমিটারের মধ্যে দুই বছরে পুরোদমে কাজ চলেছে উত্তরার দিয়াবাড়ি থেকে আগারগাঁও। গেল বছর আগস্ট থেকে শুরু হয় মেট্রো রেল প্রকল্পের দ্বিতীয় ধাপের কাজ। শহরের প্রাণকেন্দ্র ফার্মগেট কাওরান বাজার বাংলামোটর শাহবাগের মতো এলাকায় দ্বিতীয় ধাপের নির্মাণ কাজ কতটা এগিয়েছে জানতে চাইলে ঢাকা মাস ট্রানজিট কোম্পানির ব্যবস্থাপনা পরিচালক এম এ এন ছিদ্দিক বলেন, ‘সার্বিক ভাবে এই অংশে ৬ শতাংশ সম্পন্ন হয়েছে। আমরা বিশ্বাস করি ১ বছর ৯ মাসের মধ্যে আমরা সম্পন্ন করতে পারবো।’
আগারগাঁও থেকে কারওয়ান বাজার পর্যন্ত ৩ কিলোমিটার লাইনে এখন চলছে পাইলিংয়ের কাজ। এরই মধ্যে শেষ হয়েছে প্রকল্প এলাকার মাটির তলদেশের ইউলিটি তার স্থানান্তর ও চেক বোরিং। এ এলাকার ৩টি স্টেশনসহ মতিঝিল পর্যন্ত ৭টি স্টেশনের জন্য ভূমি অধিগ্রহণ শেষে নির্মাণ কাজও চলছে সমানতালে।

ঢাকা মাস ট্রানজিট কোম্পানির ব্যবস্থাপনা পরিচালক এম এ এন ছিদ্দিক বলেন, ‘মিরপুরে আমরা ১১ মিটার অকুপায় করে ছিলাম। এখানে প্রথম যখন আমরা চেক বোর্ডিং করেছি, আমরা সেটা ছোট্ট জায়গা আড়ায় বা তিন মিটার করেছি। যখন ভায়াডাক্ট নির্মাণ শুরু হবে তখন ১১ মিটারে যাবো।’ এ কর্মকর্তা জানান, নভেম্বরেই জাপান থেকে দেশের মাটিতে আসবে মেট্রোরেল। সবকিছু ঠিক থাকলে চলতি বছরে ডিসেম্বরে উত্তরা থেকে আগারগাঁও এবং আগামী বছর আগারগাঁও থেকে মতিঝিল পর্যন্ত চলবে বহুল কাঙ্ক্ষিত মেট্রোরেল।

আপনার মতামত লিখুনঃ