ধান চাষে কৃষকের অনিহা

ধান চাষে কৃষকের অনিহা
ধান চাষে কৃষকের অনিহা

ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি ॥ টানা দুই বছর লোকসান গুনায় চলতি মৌসুমে বোরো ধান চাষে অনিহা দেখা দিয়েছে ঠাকুরগাঁওয়ের চাষীদের মাঝে। ঠান্ডা ঘন কুয়াশায় বীজতলা ক্ষতিগ্রস্থ হওয়ায় চারা লাগাতেও কিছুটা বিলম্ব এবার।

গতবারের তুলনায় বোরো ধান কম রোপণ করা হবে বলে জানিয়েছেন কৃষক। ফসলের কাঙ্খিত মূল্য পেতে ধানের পাশাপাশি ভূট্টা, গম, মরিচ, আলু, মিষ্টি কুমড়া চাষে আগ্রহী হয়ে উঠছেন কৃষক।

কৃষি বিভাগের তথ্য মতে দেশের অন্যান্য জেলার মতো ঠাকুরগাঁও জেলা কৃষিতে সমৃদ্ধ। এ জেলার মানুষের প্রধান পেশা কৃষি। শতকরা ৮০% ভাগ মানুষই কৃষির উপর নির্ভর।

বোরো ধানের আবাদও হয় ব্যাপক পরিমানে। যা এলাকার চাহিদা মিটিয়ে ঢাকা, রাজশাহী ও রংপুরসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে সরবরাহ করা হয়।

ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলার বড়গাঁও গ্রামের কৃষক হরিন্দর বর্মন বলেন এক বিঘা জমিতে ধান উৎপাদন করতে খরচ হয় ১৬-১৭ হাজার টাকা। ধান উৎপাদন হয় ৩৫-৪০ মন। যার আনুমানিক মূল্য ১৫-১৬ হাজার টাকা।

প্রতি বিঘা জমিতে লোকসান হয় ১-২ হাজার টাকা। ছোট খাট ব্যবসা করে টিকে আছি। একই গ্রামের কৃষক রফিক বলেন প্রতি বছর ধানে লজ হয়। ধানের দাম পাই না।

এলাকার অনেকেই এবার ধানের পরিবর্তে ভূট্টা, গম, মরিচ, আলু, মিষ্টি কুমড়া চাষ করছে। প্রতিবছর অনেক জমিতে বোরো ধানের চাষ করি কিন্তু এবার শুধুমাত্র নিজের খাওয়ার জন্য ধানের আবাদ করবো।

নারগুন গ্রামের সমারুমোহন বলেন যখন কৃষকের ঘরে ধান থাকে, তখন সরকার ধান কিনে না। আর যখন ধান থাকে না, তখন ধান কিনে, এতে ক্ষতিগ্রস্থ হয় চাষীরা। লাভবান হয় ফরিয়া, দালাল ও ব্যবসায়ীরা।

সদর উপজেলার ফারাবাড়ী হাটের সার ব্যবসায়ী বাবুল হোসেন বলেন প্রতি বছর এই সময় দোকানে ব্যাপক ভীড় থাকতো । কিন্তু এবার সেটা নাই। একদিকে চারা লাগাতে দেরী। অপর দিকে কৃষক ধানের ন্যায্য মূল্য না পাওয়া। নতুন গড়েয়া হাটের কাপড় ব্যবসায়ী আইজুল হক বলেন ব্যবসার অবস্থা ভাল না। আমাদের মূল খরিতদার কৃষক। তারা ধানের দাম না পেলে ব্যবসা ভাল হয় কি করে ?

ঠাকুরগাঁও কৃষি সম্প্রসারণ বিভাগের উপ-পরিচালক আবতাব হোসেন বলেন এবার জেলায় বোরো চাষের লক্ষমাত্রা ধরা হয়েছে ৬২ হাজার ৩৬০ হেক্টর জমিতে। এতে উৎপাদন হবে ২ লাখ ৫৪ হাজার ৩৭৭ মেট্রিক টন ধান। কৃষকের মাঝে অনীহা বিষয়ে জানতে চাইলে বলেন কৃষক ফসলের কাঙ্খিত মূল্য পেতে ভূট্টা, গম, মরিচ, আলু, মিষ্টি কুমড়া চাষে আগ্রহী হয়ে উঠছেন।

আপনার মতামত লিখুনঃ