দি মারিয়া-এমবাপে-ইকার্দির গোলে পিএসজির বড় জয়

দি মারিয়া-এমবাপে-ইকার্দির গোলে পিএসজির বড় জয়

এনএনবি : চোটের জন্য নেই নেইমার। চোট থেকে সেরে ওঠা কিলিয়ান এমবাপে, এদিনসন কাভানি নেই শুরুর একাদশে। তারকা ফরোয়ার্ডদের অনুপস্থিতিতে পুরো দায়িত্ব নিজের কাঁধে তুলে নিলেন আনহেল দি মারিয়া। দ্বিতীয়ার্ধে বদলি নেমে গোল পেলেন এমবাপে। জালের দেখা পেলেন মাউরো ইকার্দিও। পিএসজি পেল বড় জয়।

নিসকে তাদেরই মাঠে শুক্রবার রাতে ৪-১ গোলে হারিয়েছে টমাস টুখেলের দল। প্রথমার্ধে জোড়া গোল করেন দি মারিয়া। ম্যাচের শেষ দিকে নিসের জালে বল পাঠান এমবাপে ও ইকার্দি।

ফল যতটা দেখাচ্ছে ততটা একপেশে ছিল না ম্যাচ। দ্বিতীয়ার্ধে ব্যবধান কমিয়ে ম্যাচ জমিয়ে তুলেছিল দুই দলের সবশেষ দেখায় প্যারিসে ১-১ গোলে ড্র করা নিস। ৭৪তম মিনিটে দ্বিতীয় হলুদ কার্ড দেখে মাঠ ছাড়েন ভিলিঁও সিপিয়াঁ। তিন মিনিট পর সরাসরি লাল কার্ড দেখেন ক্রিস্তোফ। এরপর আর পেরে ওঠেনি স্বাগতিকরা।

পঞ্চদশ মিনিটে ফরাসি চ্যাম্পিয়নদের এগিয়ে নেন দি মারিয়া। ইকার্দির চমৎকার পাস পেয়ে বল পায়ে এগিয়ে যান অরক্ষিত আর্জেন্টাইন মিডফিল্ডার। বিপদ দেখে এগিয়ে আসেন গোলরক্ষক। তেমন কিছু করতে পারেননি তিনি, কোনাকুনি শটে জাল খুঁজে নেন দি মারিয়া।

২১তম মিনিটে ব্যবধান বাড়ান তিনি। তমা মুনিয়ের উঁচু করে বাড়ানো বলে ছুটে গিয়ে বাঁ পায়ে দারুণ চিপে গোলরক্ষকের মাথার উপর দিয়ে বল পাঠান জালে।

দ্বিতীয়ার্ধে ৬৭তম মিনিটে ইগনাতিয়োস গানাগোর গোলে ব্যবধান কমায় নিস। চার মিনিটের মধ্যে নিসের দুই খেলোয়াড় মাঠ ছাড়লে এলোমেলো হয়ে যায় জমে উঠা ম্যাচ।

৮৩তম মিনিটে মাঠে যাওয়ার পাঁচ মিনিটের মধ্যে জালের দেখা পেয়ে যান এমবাপে। দি মারিয়ার শট দান্তে ফিরিয়ে দিলে বল পান অরক্ষিত এমবাপে। তরুণ ফরাসী ফারোয়ার্ড গড়ানো শটে স্কোর লাইন করে ফেলেন ৩-১।

৯০তম মিনিটে আক্রমণে থাকা ত্রয়ীর বোঝা পড়ায় চতুর্থ গোলটি আদায় করে নেয় পিএসজি। প্রতি আক্রমণ থেকে বল পেয়ে দি মারিয়া বল বাড়ান এমবাপেকে। তার ডিফেন্স চেরা স্কয়ার পাসে বাকিটা সহজেই সারেন ইন্টার মিলান থেকে ধারে খেলতে আসা ইকার্দি।
১০ ম্যাচে ৮ জয়ে ২৪ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে অবস্থান সুসংহত করল পিএসজি। ৯ ম্যাচে ১৯ পয়েন্ট নিয়ে দুই নম্বরে আছে নঁত।

আপনার মতামত লিখুনঃ