তিনটি রাস্তার কাজ উদ্বোধন করলেন উপজেলা চেয়ারম্যান ববি

তিনটি রাস্তার কাজ উদ্বোধন করলেন উপজেলা চেয়ারম্যান ববি
সদ্যপুস্করনী ইউনিয়নে তিনটি রাস্তার কাজের উদ্বোধন করছেন উপজেলা চেয়ারম্যান নাছিমা জামান ববি।

সদর (রংপুর) প্রতিনিধিঃ
সদর উপজেলার সদ্যপুস্করনী ইউনিয়নে একই দিন তিনটি রাস্তার কাজ এইচবিবি করণের উদ্বোধন করা হয়েছে। গতকাল উপজেলা চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামীলীগের মহিলা বিষয়ক সম্পাদক নাছিমা জামান ববি রাস্তা তিনটির কাজের উদ্বোধন করেন।

এসময় উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ইসরাত সাদিয়া সুমী, এ্যাসিল্যান্ড ছন্দা পাল, ভাইস চেয়ারম্যান মাসুদার রহমান মিলন, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান কাজলী বেগম, ইউনিয়নের চেয়ারম্যান সোহেল রানা, উপজেলা প্রকল্প অফিসার আব্দুল মতিনসহ ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক, ইউপি মেম্বারবৃন্দ, এলাকাবাসী সহ গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।

জানা গেছে, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদপ্তরের গ্রামীন মাটির রাস্তা সমূহ টেকসই করণের লক্ষ্যে হেরিং বোন বন্ড করণ (এইচবিবি) প্রকল্পের আওতায় সদ্যপুস্করনী ইউনিয়নের ৪ নং ওয়ার্ডের ভেলু নামক এলাকায় দুইটি এবং ৬ নং ওয়ার্ডের রামজীবন নামক পাড়ায় একটি রাস্তা এইচবিবি করা হবে। এতে ব্যয় ধরা হয়েছে প্রায় এক কোটি ৬৪ লক্ষ টাকা।

উদ্বোধনের পূর্বে উপস্থিত জনগণের উদ্দেশ্যে দেয়া সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে নাছিমা জামান ববি বলেন, শেখ হাসিনার দর্শন বাংলাদেশের উন্নয়ন এই শ্লোগানকে বুকে ধারন করে বীরদর্পে এগিয়ে যাচ্ছে রংপুর সদর উপজেলার কার্যক্রম।

গত দশ বছরে সদর উপজেলায় ব্যাপক উন্নয়ন মূলক কাজ হয়েছে। বিশেষ করে যোগাযোগ ব্যবস্থায় বিপ্লব ঘটেছে। এই ইউনিয়নেরে দু’চারটে ছাড়া সকল রাস্তা পাকা করা হয়েছে। যেগুলো বাকী রয়েছে স্বল্প সময়ের মাঝে সেগুলোও পাকা করা হবে।

ভোটের আগে আমি প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলাম নির্বাচিত হলে ভেলু এবং রামজীবন এলাকার জনগণের দীর্ঘ দিনের দুর্ভোগ রাস্তা তিনটি পাকা করে দেবো। আজ আমার কথা রাখার দিন, আমি কথা রাখলাম। ববি কথা দিলে কথা রাখে।

সরকারী বরাদ্দ পেতে সময় লাগে। একটু দেরী হয়েছে মাত্র। মোকলেছার নামের এক বয়োবৃদ্ধ জানান, আমি এই রাস্তাটি দিয়ে যাতায়াত করি। বর্ষার সময় এমন কাদা হয় যে ঘর থেকে বের হলে আজাব মনে হয়। সেন্ডেল পায়ে যাতায়াত করা যায় না।

সেন্ডেল হাতে নিয়ে চলাচল করতে হয়। কোন যান্ত্রিক যান নিয়ে প্রবেশ করা যায় না। এই রাস্তাটি এইচবিবি করণ করা হলে এলাকাবাসীর কঠিন দুর্ভোগ কমে যাবে। এ জন্য তিনি উপজেলা চেয়ারম্যান নাছিমা জামান ববির কাছে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।

আরো পড়ুন: