জেগে উঠছে শিশু ও নারীরা

জেগে উঠছে শিশু ও নারীরা
জেগে উঠছে শিশু ও নারীরা

ভূরুঙ্গামারী (কুড়িগ্রাম) প্রতিনিধিঃ
কহিনুর বললেন ‘অল্প বয়সে ছওয়া (সন্তান) বিয়ে দেয়া যাবোনা। কেউ দিলে ১০৬ নম্বর ফোনে জানাতে হবে।’ আম্বিয়া বলেন, ‘গাছের যতœ নিলে গাছ যেমন ভালো ফল দেয়, সন্তানের যতœ নিলে সে সন্তান ও ভালো হয়।’ সুফিয়া জানায়, ‘গরীব মানুষ বিচার পায়না , মামলা চালাতে পারেনা আজ শুনলাম সরকার গরীব মানষের মামলা চালায়’। কহিনুর , আম্বিয়া ও সুফিয়া এরা সকলেই গৃহ বধু এবং বাস করে পাইকের ছড়া ইউনিয়নের বেলদহ গ্রামে। এলাকার এক প্রাক্তন মেম্বারের ডাক শুনে অনেকের মতো উঠান বৈঠকে যোগ দিয়েছে এরা।

বৈঠক শেষে এভাবেই তারা তাদের অভিমত ব্যক্ত করেছে। শিশু ও নারী উন্নয়নে সচেতনতা মূলক যোগযোগ কার্যক্রম (৫ম পর্যায়) শীর্ষক প্রকল্প জিওবি এর আওতায় জেলা তথ্য অফিস উপজেলার প্রত্যন্ত অঞ্চলে গ্রামিন মহিলাদের নিয়ে উঠান বৈঠক চালাচ্ছে। আরডিআরএসের বিল্ডিং বেটার ফর ফিউচার প্রকল্প তাদের সহযোগিতা করছে। ইতিমধ্যে তথ্য অফিস ভূরুঙ্গামারী সদর ইউনিয়নের চরনলেয়া, সীমান্তঘেষা ভোটহাট, আন্ধারীঝাড়

ইউনিয়নের চরবারইটারী সরকারী বিদ্যালয় সাঠে, মাহিগঞ্জ-চান্দনিয়া, চর বলদিয়া, চৌধুরী বাজার, জয়মনিরহাট ইউনিয়নের মধ্যখাটামারী ও শিংঝাড়, শিলখুড়ি ইউনয়নের খালেক মাস্টারের বাড়ি, সর্বশেষ মঙ্গলবার পাইকের ছড়ার বেলদহ গ্রামে তারা উঠান বৈঠক করেছে। আরডিআরএসের ফিউচার প্রকল্পের প্রকল্প ব্যবস্থাপক রবিউল ইসলাম জানান আমরাও নারী ও শিশুদের নিয়ে কাজ করছি। কাজের ধরন এক হওয়ায় আমরা তাদের সহযোগিতা করছি।

কুগ্রিাম জেলা তথ্য অফিসার মোঃ শাহজাহান আলী জানান, কুড়িগ্রাম জেলা নারী ও শিশুরা দেশের মধ্যে সবচেয়ে বেশি আবহেলিত ও বঞ্চিত। এ এলাকার শিশুদের বাল্য বিয়ে বন্ধ, প্রত্যেক শিশুকে বিদ্যালয়ে পাঠানো, নারী প্রতি সহিংসতা বন্ধ, জঙ্গীবাদের উথ্থান, জন্ম নিবন্ধন , বজ্রপাতে করনীয় প্রভৃতি বিষয়ে সতেননতা করতে গ্রাম গুলোতে উঠান বৈঠক করা হচ্ছে। তিনি জানান ইতিমধ্যে তারা ১৬টি গ্রামে উঠান বৈঠক করেছেন এবং গ্রামিণ মহিলাদের অভাবনীয় সারা পেয়েছেন।

তিনি বলেন, উপরোক্ত বিষয় গুলো নিয়ে উঠান বৈঠকে লোক সঙ্গীত ও চলচ্চিত্র প্রদর্শন করা হচ্ছে। উঠান বৈঠক শেষ হবার পর কিশোরীদের নিয়ে উপজেলা পর্যায়ে কিশোরী মেলার আয়োজন করা হবে বলে তিনি জানান। পাইকেরছড়া ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুর রাজ্জাক সরকার জানান, জেলা তথ্য অফিসের উদ্যোগে উঠান বৈঠক সম্পর্কে আমার জানা রয়েছে। তাদের এ উদ্যোগের ফলে নারীরা সচেতন হবে বলে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন।