জুভেন্টাসের দুর্দান্ত জয় – রিয়ালের শ্বাসরুদ্ধকর সমতা

জুভেন্টাসের দুর্দান্ত জয় - রিয়ালের শ্বাসরুদ্ধকর সমতা

উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লিগে গ্রুপ পর্বের ম্যাচে অ্যালিয়াঞ্জ স্টেডিয়ামে জুভেন্টাসের মুখোমুখি হয় বেয়ার লেভারকুসেন। ওই ম্যাচে ঘরের মাঠ জার্মান ক্লাবটিকে ৩-০ গোলে উড়িয়ে দিয়েছে তুরিনের বুড়িরা।

চেনা মাঠে ম্যাচের ১৭ মিনিটেই হিগুয়েনের গোলে লিড পেয়ে যায় জুভেন্টাস। মাঝমাঠের কাছ থেকে উড়ে আসা বল ডি-বক্সের বাইরে হেডে ক্লিয়ার করতে ব্যর্থ হন লেভারকুজেনের ডিফেন্ডার ইয়োনাথান। এ সময় দারুণ এক ছোঁয়ায় বলটি নিয়ন্ত্রণে নিয়ে ডান পায়ের নিচু শটে প্রতিপক্ষের জালে বল পাঠন আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ড হিগুয়েন। ম্যাচের ৩৯ মিনিটে তিনি ব্যবধান দিগুণ করার সুযোগ পেলেও তা কাজে লাগাতে পারেননি।

বিরতির পর ম্যাচের ৬১ মিনিটে দ্বিতীয় গোলের দেখা পায় জুভিরা। এ সময় স্বাগতিকদের এগিয়ে দেন মিডফিল্ডার ফেদ্রিকো বের্নাদেসসি। ম্যাচের ৭৫তম মিনিটে রোনালদোর কোনাকুনি শট ঝাঁপিয়ে ঠেকান গোলরক্ষক আগুয়ান।

তবে নির্ধারিত সময় শেষ হওয়ার দুই মিনিট আগে গোলের দেখা পান রোনালদো। বদলি নামা পাওলো দিবালার দারুণ পাস ডি-বক্সে ধরে কোনাকুনি শটে গোলরক্ষককে পরাস্ত করেন পাঁচবারের এই বর্ষসেরা ফুটবলার।

বড় হার দিয়ে চ্যাম্পিয়নস লিগের নতুন মৌসুম শুরু করেছিল রিয়াল মাদ্রিদ। আরেকটি বিব্রতকর হারের শংকায় পড়েছিল তারা। তবে শেষদিকে কাসেমিরো নৈপুণ্যে শ্বাসরুদ্ধকর ম্যাচে স্বস্তি নিয়ে মাঠ ছেড়েছেন লস ব্লাঙ্কোরা। পুচকে ব্রুজের বিপক্ষে ২-২ গোলের ড্র নিয়ে সন্তুষ্ট থাকতে হয়েছে তাদের।

ম্যাচের ৯ মিনিটে দলকে লিড এনে দেন ইমানুয়েল বোনাভেনচুরা। ৩৯ মিনিটে নিশানাভেদ করে ব্রুজকে ২-০ ব্যবধানে এগিয়ে দেন সেই ইমানুয়েল।

৫৫ মিনিটে ব্যবধান কমান সার্জিও রামোস। গোলমুখে বেনজেমার বাড়ানো ক্রসে দুর্দান্ত হেডে বল ঠিকানায় পাঠান তিনি। ৮৪ মিনিটে টনি ক্রুসের শটে কোনাকুনি হেডে বল জালে জড়ান কাসেমিরো। শেষ পর্যন্ত ২-২ গোলের ড্রয়ে খুশি থাকতে হয় দুদলকে।

আপনার মতামত লিখুনঃ