জাপানে প্রীতি ম্যাচে চেলসির কাছে ২-১ গোলে পরাজিত বার্সেলোনা

জাপানে প্রীতি ম্যাচে চেলসির কাছে ২-১ গোলে পরাজিত বার্সেলোনা

জাপানে অনুষ্ঠিত প্রীতি ম্যাচে চেলসির কাছে ২-১ গোলে পরাজিত হয়েছে বার্সেলোনা। টামি আব্রাহাম ও রস বার্কলির গোলে চেলসির জয় নিশ্চিত হয়। স্প্যানিশ জায়ান্টদের হয়ে অনানুষ্ঠানিক অভিষেক হয়েছে বিশ^কাপ জয়ী ফ্রেঞ্চ তারকা আঁতোয়ান গ্রিজম্যান ও আয়াক্স মিডফিল্ডার ফ্রেংকি ডি জংয়ের।

তারকা সমৃদ্ধ দল দু’টিকে উৎসাহ দিতে টোকিওর সাইতামা স্টেডিয়ামে প্রায় ৫২ হাজার উপস্থিত দর্শকের আগ্রহের কমতি ছিল না। চেলসি স্ট্রাইকার আব্রাহাম ৩৪ মিনিটে বার্সা মিডফিল্ডার সার্জিও বাসকোয়েটের ভুলের সুবাদে দলকে এগিয়ে দেন। গোলরক্ষক মার্ক আন্দ্রে টার স্টেগান চেষ্টা করেও তা রুখতে পারেননি।

ম্যাচ শেষে চেলসি কোচ ফ্র্যাংক ল্যাম্পার্ড তার দলের তরুণ এই স্ট্রাইকারের প্রশংসা করতে ভুল করেননি, ‘টামি একজন গোল স্কোরার। সবসময়ই গোলের জন্য তার ক্ষুধা থাকে।’ ট্রান্সফার নিষেধাজ্ঞা মাথার উপর থাকলেও ল্যাম্পার্ড জানিয়েছেন জাপান সফরে চেলসির দুই ম্যাচে অন্তত একটি বিষয় প্রমানিত হয়েছে তার হাতে একটি প্রতিদ্বন্দ্বীতাপূর্ণ ও প্রতিশ্রুতিবদ্ধ দল রয়েছে।

তিনি বলেন, আমি খেলোয়াড়দের সম্পর্কে যা জানতে পেরেছি তা হলো তারা খুবই শক্তিশালী একটি গ্রুপ। তাদের সাথে কাজ করতে পেরে আমি দারুণ খুশী। এখনো অনেক কাজ বাকি আছে। তবে প্রাক-মৌসুম এটি একটি দারুণ সফর ছিল। সবদিক থেকেই এটি দারুণ ইতিবাচক ছিল।

প্রথম গোলের মিনিটখানেক পরেই চেলসি মিডফিল্ডার ক্রিস্টিয়ান পুলিসিচ দারুণ দক্ষতায় বার্সা রক্ষণভাগ ভেঙ্গে বাম পায়ে জোড়ালো শট নিলেও তা অল্পের জন্য বাইরে চলে যায়। দ্বিতীয়ার্ধে বার্সেলোনা কিছুটা আক্রমণাত্মক হয়ে উঠে। আর তার নেতৃত্বে ছিলেন বদলী স্ট্রাইকার কার্লেস পেরেজ।

তবে চেলসি গোলরক্ষক কেপা আরিজাবালেগার একের পর এক সেভ বার্সাকে বারবার হতাশ করেছে। ৫৫ মিনিটে পেরেজ তিনজন চেলসি ডিফেন্ডারকে কাটিয়ে পোস্টে শট নিলেও তা আরিজাবালেগাকে পরাস্ত করতে পারেনি।

ম্যাচ শেষের ১০ মিনিট আগে বার্কলির কার্লিং শট আটকানোর সাধ্য ছিলনা বদলী গোলরক্ষক নেটোর। ইনজুরি টাইমের একটু আগে বক্সের ঠিক বাইরে ফ্রি-কিক পেলেও মিডফিল্ডার ইভান রাকিটিচের শট বারের উপর দিয়ে বাইরে চলে যায়। যদিও ইনজুরি টাইমের প্রথম মিনিটেই ম্যালকমের ক্রস থেকে রাকিটিচ বার্সেলোনার পক্ষে সান্তনাসূচক এক গোল করেন।

ল্যাম্পার্ডের মতই বার্সা কোচ আর্নেস্টো ভালভার্দে বলেছেন, ম্যাচটি ভাল একটি পরীক্ষা ছিল। এর মাধ্যমে অন্তত জানা গেছে কোন জায়গাগুলোতে আমাদের উন্নতি করতে হবে। নেইমারকে পিএসজি থেকে উড়িয়ে আনা হবে কি-না এই বিষয়টি এড়িয়ে গেলেও ১২০ মিলিয়ন ইউরোতে এ্যাথলেটিকো মাদ্রিদ থেকে দলে আনা গ্রিজম্যানকে নিয়ে প্রচন্ড আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন বার্সা কোচ।

এ সম্পর্কে ভালভার্দে বলেছেন, ‘গ্রিজম্যানের দলের সাথে মানিয়ে নেয়াটা জরুরী। তবে বল সাথে থাকলে সে যে একজন বিপদজনক খেলোয়াড় তা ইতোমধ্যেই প্রমাণ করেছেন। তার মধ্যে অনেক ধরনের আইডিয়া আছে। এটা তার অভিষেক ম্যাচ। আমি নিশ্চিত দিনে দিনে সে বার্সার সাথে নিজেকে পরিণত করে তুলবে।

এদিকে গ্রিজম্যান বলেছেন নতুন ক্লাবের ব্যপারে সে দারুণ আশাবাদী। তিনি বলেন, ব্যক্তিগতভাবে আমি অনেক বেশি ম্যাচ খেলতে চাই। গত মৌসুমের তুলনায় আরো বেশি গোল করতে চাই, গোলে সহযোগিতা করতে চাই।

আপনার মতামত লিখুনঃ