জমি নিয়ে বিরোধ : দু’পক্ষের সংঘর্ষে গুলিবিদ্ধ হয়ে নিহত ১ , আহত ১০ জন

জমি নিয়ে বিরোধ : দু’পক্ষের সংঘর্ষে গুলিবিদ্ধ হয়ে নিহত ১ , আহত ১০ জন

মোঃ আফজাল হোসেন ফুলবাড়ী দিনাজপুর প্রতিনিধি:
দিনাজপুরের নবাবগঞ্জে জমি নিয়ে বিরোধের জের ধরে দুই পক্ষের সংঘর্ষে লিটন (৪২) নামে একজন গুলিবিদ্ধ হয়ে নিহত হয়েছে, একই ঘটনায় আহত হয়েছে উভয় পক্ষের আরো ১০জন।

আহতদের উদ্ধার করে নবাবগঞ্জ,ফুলবাড়ী ও দিনাজপুর এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

গত শনিবার বেলা সাড়ে ১২ টায় দিনাজপুরের ফুলবাড়ী উপজেলার সন্নিকটে নবাবগঞ্জ উপজেলার জয়পুর ইউনিয়নের ভালকা গ্রামে এই সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

গুলিবিদ্ধ হয়ে নিহত মোঃ লিটন নবাবগঞ্জ উপজেলার চককরিম গ্রামের আতিয়ার রহমানের ছেলে। আহতরা হলেন, নবাবগঞ্জ উপজেলার চককরিম মনোহরপুর গ্রামের জোনাব আলীর ছেলে সাজু (২৫), একই এলাকার জালাল উদ্দিনের ছেলে খোরশেদ (২৮) একই উপজেলার বড়আড়া গ্রামের আনোয়ার হোসেনের স্ত্রী বিলকিস বেগম (৩৫),বড়আড়া কানাহার গ্রামের আজিজুর রহমানের মেয়ে মনোয়ারা বেগম (৪০),মঞ্জু আরা বেগম (৩৫) একই এলাকার রফিক উদ্দিনের এর স্ত্রী মঞ্জিলা বেগম (৬৫), ইসলামপুর গ্রামের মৃত অফুর উদ্দিনের ছেলে সাহাব উদ্দিন (৬০), রঘুনাথপুর গ্রামের মতিয়ার রহমানের স্ত্রী মোছাঃ আজুফা বেগম (৫০), একই এলাকার আফুর উদ্দিনের ছেলে সাহেব আলী (৬৫) ও জব্বার আলী (৫৭)।

নিহত লিটনের পরিবারের সদস্যরা বলেন পুলিশের ছোড়া গুলিতে লিটন গুলিদ্ধি হয়ে আহত হলে তাকে প্রথমে ফুলবাড়ী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসা হয়, উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কর্তব্যরত চিকিৎসক মেডিকেল অফিসার রেজাউল করিম, উন্নত চিকিৎসার জন্য দিনাজপুর এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরন করেন। দিনাজপুর এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক লিটনকে মৃত বলে ঘোষনা করেন।

এই বিষয়ে জানতে চাইলে নবাবগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ সুব্রত কুমার সরকার বলেন, উপজেলার বড়আড়া গ্রামের রফিক উদ্দিনের সাথে নিহত লিটনের জমি নিয়ে দির্ঘদিন থেকে মামলা চলে আসছিল, সম্প্রতিক নি¤œ আদালত থেকে বিরোধীয় জমির ডিগ্রী পান রফিক উদ্দিন, সেই নি¤œ আদালতের আদেশ বলে রফিককে জমি বুজিয়ে দিতে গেলে প্রতিপক্ষ লিটন দলবল নিয়ে পুলিশের কাজে বাধাদেয় ও হামলা করে, এসময় পুলিশ ফাঁকা গুলিকরে, কিন্তু পুলিশের গুলিতে লিটন গুলিবিদ্ধ হয়েছে কি না? তা তাঁর জানা নাই বলে জানান। কিন্তু এলাকাবাসী জানান পুলিশ প্রথমে ফাকা গুলি করলেও পরে পুলিশ বেশ কয়েক রাউন্ড গুলি ছোড়ে।

এদিকে লিটনের পরিবারের সদস্যরা বলেন ভালকা আড়া এলাকার ৮ বিঘা জমি দির্ঘদিন তাদের দখলে আছে, হঠাৎ উক্ত জমি পুলিশ নিয়ে রফিক দখল করতে আসলে লিটন বাধা দেয় এতে উভায় পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ বাধে, এসময় পুলিশ গুলি করলে লিটন গুলিবিদ্ধ হয়ে আহত হয়।

বর্তমান এলাকায় পুলিশের গুলিতে লিটন নিহত হওয়ায় এলাকায় গতকাল রবিবার (আজ) চরম উত্তেজনা চলছে। এলাকাবাসী পুলিশের উদ্ধতন কর্তৃপক্ষের বিভাগীয় তদন্ত কামনা করেছেন। এবং পুলিশ অন্যয় ভাবে গুলি ছুড়ে হত্যার ঘটনার বিচার চেয়েছেন।

আপনার মতামত লিখুনঃ