জঙ্গি আস্তানায় দুজন নিহত : র‌্যাবের ডিজি

জঙ্গি আস্তানায় দুজন নিহত : র‌্যাবের ডিজি
জঙ্গি আস্তানায় অন্তত দুজন নিহত : র‌্যাবের ডিজি

র‌্যাবের মহাপরিচালক (ডিজি) বেনজীর আহমেদ বলেছেন, বসিলার জঙ্গি আস্তানায় বিস্ফোরণে ছিন্নভিন্ন দেহাবশেষের মধ্যে অন্তত তিনটি পায়ের অংশ পাওয়া গেছে। সেখানে অন্তত দুজন নিহত হয়েছেন বলে ধারণা করছেন তারা।

ডিজি বলেছেন, ‘বাড়িটি লণ্ডভণ্ড অবস্থায় আছে। এখনো পুরো বাড়ি পরিষ্কার করা হয়নি। পরিষ্কার করতে সময় লাগবে। এরপর নির্দিষ্ট করে নিহতের সংখ্যা বলা যাবে। ঘরের মধ্যে বিচ্ছিন্ন অবস্থায় তিনটি পা দেখা গেছে। ধারণা করছি, সেখানে অন্তত দুজন নিহত হয়েছে।’

তিনি বলেন, ‘আমাদের সদস্যরা কেয়ারটেকারকে বাড়ি থেকে বের করে এনে কথা বলেন। তখন আমাদের সদস্যদের লক্ষ্য করে গুলি করা হয়। আমরাও পাল্টা গুলি চালাই। র‌্যাব প্রায় ১৫০ রাউন্ড গুলি করেছে। তারাও গুলি করেছে। তারা কিছু ইমপ্রোভাইজড এক্সপ্লোসিভ ডিভাইস (আইইডি) নিক্ষেপ করেছে আমাদের দিকে। শেষের দিকে তারা বাড়িটি উড়িয়ে দিয়েছে।’

বাড়িতে অবস্থান নেওয়া জঙ্গিরা কোনো সংগঠনের ছিল কি না, জনতে চাইলে বেনজীর আহমেদ বলেন, এটা প্রাথমিক অবস্থায় আছে। পরবর্তীতে বিস্তারিত জানানো হবে।

অভিযান শেষ হতে কত সময় লাগবে, এ বিষয়ে ডিজি বলেন,  ‘অভিযান পুরোপুরি শেষ হয়নি। এখন আমাদের বোম্ব ডিসপোজাল ইউনিট সুইপ করছে। এরপর ডগ স্কোয়াড সুইপ করবে। তারপর অভিযান শেষ হবে।’

এর আগে জঙ্গিদের অবস্থানের খবর পাওয়ার পর রোববার রাত ৩টার দিকে মেট্রো হাউজিংয়ের ওই টিনশেড বাসাটি ঘিরে ফেলেন র‌্যাব-২ এর সদস্যরা।

এ সময় ওই বাসার ভেতরে বিস্ফোরণ ঘটানো হয় এবং র‌্যাবের সদস্যদের লক্ষ্য করে গুলি চালানো হয়। র‌্যাবও পাল্টা গুলি চালায়। সকাল ৯টার পর বম্ব ডিসপোজাল ইউনিটকে সঙ্গে নিয়ে র‌্যাবের স্পেশাল ফোর্সের সদস্যরা ওই বাড়িতে ঢোকেন। সে সময়ও সেখান থেকে কয়েক দফা গুলির শব্দ পাওয়া যায়। এরপর বেলা ১১টায় বাঁশ ও টিন দিয়ে তৈরি বাড়িটিতে হঠাৎ আগুন ধরে যায়। আগুন নিয়ন্ত্রণে কাজ করছেন ফায়ার সার্ভিসের সদস্যরা।

>>রাজধানীতে জঙ্গি আস্তানা সন্দেহে বাড়ি ঘেরাও, গোলাগুলি