চিরিরবন্দরে আটক মাদক ব্যবসায়ীকে ইউপি চেয়ারম্যান কৃর্তক ছেড়ে দেয়ার অভিযোগ

মোহাম্মাদ মানিক হোসেন চিরিরবন্দর (দিনাজপুর) প্রতিনিধি ঃ

দিনাজপুরের চিরিরবন্দরে গ্রাম পুলিশ কৃর্তক আটক মাদক ব্যবসায়ীকে ছেড়ে দেয়ার অভিযোগ উঠেছে। ঘটনাটি ঘটেছে রোববার রাত সাড়ে ৯ টায় নশরতপুর ইউনিয়নের রাণীরবন্দর হাটে। এ ঘটনায় এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে।

প্রত্যক্ষদর্শী ও এলাকাবাসী সূত্রে জানাগেছে, (৭ এপ্রিল) রোববার নশরতপুর ইউনিয়নের রাণীরবন্দর হাটে ইয়াবা ট্যাবলেট মিশ্রিত মাদকের প্রায় ২০টি গুলি বিক্রির সময় ফজলুল হক মুন্সি (৫৫) কে হাতে নাতে আটক করে নশরতপুর ইউনিয়নের রাণীরবন্দর হাটের ঢহল গ্রাম পুলিশ। ওই মাদক ব্যবসায়ীর শরীর তল্লাশী করে প্রায় ১৮ হতে ২০ টি ইয়াবা মিশ্রিত মাদকের গুলিসহ তাকে নশরত ইউপি কার্যলয়ে সোর্পদ্দ করে।

পরে নশরতপুর ইউপি চেয়ারম্যান নুর ইসলাম নুরু ও সংশ্লিষ্ট ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য মোতাহার হোসেনের উপস্থিতে অজ্ঞাত কারনে মাদক ব্যবসায়ী ফজলুল হক মুন্সিকে ছেড়ে দেয়া হয় ।

যেখানে মাদক নির্মূলে প্রশাসন কাজ করে যাচ্ছেন। সেখানে কিছু অসাধু স্থানীয় প্রশাসনের অব্যবস্থাপনার কারণে মাদক ব্যবসায়ীরা বার বার পার পেয়ে যাচ্ছেন। যার কারণে মূল্য ব্যবসায়ীরা থাকছেন ধরা ছোয়ার বাইরে। ফজলুল হক মন্সি একজন নিয়মিত মাদক ব্যবসায়ী। আর সে দীঘ্রদিন যাবত সুকৌশলে মাদক ব্যবসা করেন বলে জানান স্থানীরা।

এ সময় ইউনিয়ন পরিষদ কার্যলয়ে শত শত মানুষের ভিড় জমায়। মাদক ব্যবসায়ী ফজলুল হক মুন্সি নশরতপুর গ্রামের হাছি পাড়ার মৃত সহী উদ্দিনের পূত্র বলে জানা গেছে।

এ ব্যাপারে নশরতপুর ইউপি চেয়ারম্যান নুর ইসলাম নুরু সাথে কথা হলে তিনি ছেড়ে দেয়ার বিষয়টি অকোপটে স্বীকার করেন এবং দম্ভোক্তির সাথে বলেন আমার যা ভালো মনে হয়েছে আমি তাই করেছি।

আপনার মতামত লিখুনঃ