বিদায় ২০১৯: ঘটনাবহুল রংপুর

ঘটনাবহুল রংপুর
বিদায় ২০১৯: ঘটনাবহুল রংপুর

ঘটনাবহুল রংপুর: রাজনৈতিক পরিস্থিতির বাইরে রংপুরবাসির জন্য ২০১৯ সালটি ছিল রংপুরবাসির জন্য একটি গভীর দুঃখের বছর।

কারণ এবছরেই চির বিদায় নেন রংপুরের কৃতী সন্তান সাবেক রাষ্ট্রপতি, সেনাপ্রধান, জাতীয় পার্টির প্রতিষ্ঠাতা পল্লীবন্ধু হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ।

এছাড়াও দুটি বড় হত্যাকান্ডের রায় হয়েছে। সব মিলিয়ে আশা-নিরাশায় কেটে গেছে রংপুরবাসির গতবছরটা।

গত একবছরে আইনশৃঙখলা বাহিনীর তথ্য, ইন্টারনেট থেকে পাওয়া তথ্য মতে, রংপুরে বড় ধরণের অপ্রীতিকর কোন ঘটনা ঘটেনি রংপের র‌্যাব, মোট্রোপলিটন পুলিশ, জেলা পুলিশসহ আইনশৃঙ্খলাবাহিনীর তৎপরতা ছিল লক্ষ্যনীয়।

গত বছরে রংপুরবাসি ছিল শোকাহত। কারণ ৭ জুলাই রোববার সকালে মৃত্যুবরণ করেন রংপুরের কৃতী সন্তান জাতীয় পার্টির প্রতিষ্ঠাতা, সাবেক রাষ্ট্রপতি ও সেনাপ্রধান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ।

মারা যান ভাষা সৈনিক শাহ তবিবুর রহমান। আগস্টের প্রথমে চিরবিদায় নেন বাংলাদেশ প্রতিদিন পত্রিকার রংপুরের নিজস্ব প্রতিবেদক শাহাজাদা মিয়া আজাদ।

এর কিছুদিন পর রংপুরের প্রিয়মুখ মহানগর বিএনপির সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা মোজাফ্ফর হোসেনও দুনিয়া থেকে বিদায় নেন।

রংপুর মেডিকেল কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ ডাঃ অনিমেশ মজুমদার ও আওয়ামী লীগ নেতা শাহিনুর রহমান সোহেল এ বছর আমাদের ছেড়ে চলে গেছেন।

এছাড়াও আরো বেশকজন কীর্তিমান চলেগেছেন ওপারে। ২০১৮ সালের শেষে জাতীয় নির্বাচন হলেও বছরের শুরুতে জাতীয় সংসদের স্পীকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীকে পেয়েছে পীরগঞ্জ আসনের এমপি।

জাতীয় সংসদের বিরোধী দলীয় চিফ হুইপ সাবেক প্রতিমন্ত্রী মসিউর রহমান রাঙ্গা গঙ্গাচড়া আসনের এমপি। বাণিজ্য মন্ত্রীর পদ পেয়েছেন রংপুর -৪ আসনের এমপি টিপু মুন্সি।

এরশাদের মৃত্যুর পর রংপুর সদর আসনে এমপি নির্বাচিত হন তার পুত্র সাদ এরশাদ। এই নির্বাচনকে ঘিরে রংপুরে ছিল নানা মুখি ঘটনা।

গত বছরের আলোচিত ঘটনার মধ্যে ছিল নিজ স্ত্রীর হাতে নিহত রধীশ চন্দ্র ভৌমিক বাবু সোনা হত্যা মামলার রায়।

রংপুরে বিশেষ জজ আদালতের পিপি রথীশ চন্দ্র ভৌমিক বাবুসোনা হত্যা মামলার রায়ে স্ত্রী স্নিগ্ধা সরকার ওরফে দিপাকে ফাঁসিতে ঝুলিয়ে মৃত্যুদন্ডের আদেশ দিয়েছে আদালত।

হত্যাকান্ডের ঘটনায় বাবু সোনার স্ত্রী স্নিগ্ধা সরকার দীপা ও তার প্রেমিক কামরুল ইসলামকে অভিযুক্ত করে ২০১৮ সালের ১৩ সেপ্টেম্বর অতিরিক্ত চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আরিফা ইয়াসমীন মুক্তার আদালতে চার্জশিট দেন মামলার তদন্তকর্মকর্তা।

পরে মামলাটি জেলা ও দায়রা জজ আদালতে পাঠানো করা হয়।

ওই বছরের ২১ অক্টোবর অভিযোগপত্র আমলে নিয়ে বিচারকাজ শুরু করেন বিচারক। মামলায় মোট ৩৭ জন সাক্ষীর সাক্ষ্য গ্রহণের পর চলতি বছরের ২১ জানুয়ারি উভয় পক্ষের যুক্তিতর্ক শেষ হয়।

এরপর রায় ঘোষণা করা হয়। মামলার চার্জশিটভুক্ত দুই আসামির মধ্যে একমাত্র জীবিত ছিলেন নিহত বাবুসোনার স্ত্রী স্নিগ্ধা সরকার দীপা। তার প্রেমিক কামরুল ইসলাম কারাগারে মারা যায়।

২০১৮ সালের ২৯ মার্চ রাতে বাবুসোনাকে ১০টি ঘুমের ওষুধ খাইয়ে শ্বাসরোধে হত্যা করা হয়। এরপর তার মরদেহ তাজহাট মোল্লাপাড়ায় প্রেমিক কামরুলের ভাইয়ের নির্মাণাধীন বাড়ির ঘরের মেঝেতে পুঁতে রাখা হয়।

এরপর ৩ এপ্রিল মধ্যরাতে বাবুসোনার স্ত্রী স্নিগ্ধা সরকার ওরফে দীপাকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য র‌্যাব আটক করে।

তিনি এ হত্যাকান্ডের কথা স্বীকার করেন এবং লাশের অবস্থান সম্পর্কে জানালে ওই দিন রাতে মোল্ল¬াপাড়ার ওই বাড়ির মেঝে খুঁড়ে নিহত বাবুসোনার গলিত মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

এ ঘটনায় নিহত বাবু সোনার ছোট ভাই সুশান্ত ভৌমিক বাদী হয়ে থানায় হত্যা মামলা করেন।

এদিকে গত বছর ১১ জানুয়ারি বেওয়ারিশ হিসেবে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের হিমঘরে পড়ে থাকা ১২ লাশের সদগতি হয়েছে।

ওইদিন বিকেলে এই লাশগুলোর দাফন করা হয়েছে নগরীর মুন্সিপাড়া করবস্থানে। এসব লাশের কোনটি সর্বোচ্চ ৫ বছর আবার কোনটি এক বছর থেকে হিম ঘরে ছিল।

রমেক হাসপাতাল, জেলা প্রশাসন,পুলিশ ও সিটি করপোরেশনের উদ্যোগে এই লাশ দাফনের ব্যবস্থা করা হয়।

এ বিষয়টিও শহরে আলোচিত ছিল। আরেকটি মামলার রায় নগরবাসির দৃষ্টি আকর্ষণ করেছিল তা হল ধর্ষণের ১৪ বছর পর বিচার পায় একস্কুল ছাত্রী।

দীর্ঘ ১৩ বছর ৯ মাসের বেশি সময় ধরে এ মামলায় আদালত আসামি ও বাদীপক্ষের সাক্ষ্য গ্রহণ শেষে এ রায় হল।

আসামি জাকিরুল ইসলাম মিলন রংপুরের বদরগঞ্জ উপজেলার রামনাথপুর ইউনিয়নের পাঠানপাড়া গ্রামের আনছার আলীর ছেলে।

ফেনীর সোনাগাজী মডেল থানার বিতর্কিত ওসি মোয়াজ্জেম হোসেনকে নিয়েও রংপুরে আলোচনা ছিল। রংপুর রেঞ্জ ডিআইজির কার্যালয়ে সংযুক্তির প্রতিবাদে বিক্ষোভ মিছিল, জুতা প্রদর্শন ও সমাবেশ করেছে বিক্ষুদ্ধ শিক্ষার্থীরা।

নুসরাত জাহান রাফিকে পুড়িয়ে হত্যার ঘটনায় গাফিলতির প্রমাণ পাওয়ার পর সোনাগাজী মডেল থানার ওসি মোয়াজ্জেম হোসেনকে সাময়িক বরখাস্ত করে রংপুর রেঞ্জের ডিআইজির কার্যালয়ে বদলি করা হয়।

এছাড়া রংপুর ডিসি অফিসের জিএম শাখা থেকে জেলা প্রশাসকের সই জাল করে ভুয়া কাগজপত্র তৈরি করে চারশ অস্ত্রের লাইসেন্স প্রদান ও নবায়নের ঘটনায় ৩৯১ জনের বিরুদ্ধে চার্জসিট অনুমোদন করেছে দুদক। বিষয়টি একসময় রংপুরে টকঅবদ্যা টাউন ছিল।

এ ছাড়া আত্মহত্যার ২২ বছর পর বিচার পেয়েছে ঢাকার মিরপুর আইডিয়াল কলেজের দ্বাদশ শ্রেণির শিক্ষার্থী রুমান আফরোজ তন্দ্রা।

শ্লীলতাহানি, মারধর ও আত্মহত্যার প্ররোচনার মামলায় ৫ আসামীর ১৩ বছরের কারাদন্ডাদেশ দিয়েছে আদালত। নারী ও শিশু নির্যাতন ট্রাইব্যুনাল-১ এর বিচারক জাবিদ হোসেন এ রায় দেন।

দন্ডপ্রপ্তরা হল,মানিক, রতন, রানা, বাবলা, মালেকা। এই রায়টিও চাঞ্চল্য সৃষ্টি করে নগরীতে।

২০১৯ সালের ২৪ মার্চ সদর উপজেলার নির্বাচনে তৃতীয়বারের মতো চেয়ারম্যান হিসেবে নির্বাচিত হন নারী নেত্রী নাছিমা জামান ববি, ভাইস চেয়ারম্যান মাসুদার রহমান মিলন ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান কাজলি বেগম।

অন্যদিকে র‌্যাব-১৩ এর পরিসংখ্যান থেকে জানা যায়, র‌্যাব গত বছরে ৯৩৮ জন অপরাধিকে আটক করেছে।

এর মধ্যে জঙ্গি ২৬ জন, শীর্ষ অপরাধি ৭ জন, তালিকাভুক্ত অপরাধি ২ জন, ডাকাত ও দস্যু ৭ জন, সাজাপ্রাপ্ত আসামি ২জন, ওয়ারেন্ট ভুক্ত ৩৭ জন, অপহরণকারি ১২ জন, চাঞ্চল্যকর হত্যার অপরাধি ৪ জন, অস্ত্রধারি সন্ত্রাসি ৪ জন, চাঁদাবাজ ৬ জন, কিশোর অপরাধি ১০জন, মাদক সংক্রান্ত ব্যবসায়ী ৭১৫ জন, চোরাকারবারি ৬ জন, ডিজিটাল আইনে ৬ জন, গুজব রটনাকারি ১ জন, নাশকতাকারি ৬ জন, মাদক সেবনকারি মোবাইল কোর্ট ২০ জন, প্রশ্ন ফাসকারি ৮জন, ধর্ষক ১৭ জন, চোর ৩ জন,প্রতারক ১৯ জন, নিষিদ্ধ পলিথিন ব্যবসায়ী ১ জন, অবৈধ ডলার ব্যবসায়ী ১ জন, ভিজিএফ চাল আত্মসাৎকারি ২জন, ভুয়া র‌্যাব ১ জন ও অন্যান্য অপরাধে ১৫ জনকে আটক করে।

এ ছাড়া বিদেশি পিস্তল ৯টি, বিদেশী রিভলবার ২টি, ওয়ান শুটারগান একটি, পাইপগান ১টি, তাজাগুলি ২১ রাউন্ড,ম্যাগজিন ৯টি।

এ ছাড়া উগ্রবাদি বই ৫২টি, লিফলেট ১৯৮টি এবং অপহৃত ভিকটিম ২৮ জনকে উদ্ধার করেছে। এ ছাড়া ইয়াবা উদ্ধার করেছে ৮৫ হাজার ৬৫৪ পিছ, ফেন্সিডিল ১৯ হাজার ২৯৭ বোতল, হেরোইন ৫৫৮ গ্রাম, গাজা ৪২৫ কেজি, বিয়ার ৪০৮ ক্যান, বিদেশি মদ ৭১ বোতল, দেশি মদ ২ হাজার ৫১৬ কেজি, নেশা জাতীয় ইনজেকশন ৮ হাজার,৩৫৫পিস ও এলকোহল ৩০ বোতল উদ্ধার করেছে।

র‌্যাবের পাশাপাশি মেট্রোপলিটন পুলিশ ও জেলা পুলিশও অপরাধি ধরতে তৎপর ছিল সারা বছর।

এদিকে রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের আওতায় মাদক মামলা হয়েছে ৭৩০ টি। নারী ও শিশু নির্যাদন দমন আইনে মামলা হয়েছে ২৫৭টি।

হত্যা মামলা হয়েছে ১৬টি। ১৫০ টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে মানবতার বন্ধনের ব্যপারে প্রতিদিনি খাবার পরিবেশন করেছে আরপিএমপি।

এই সময়ে সবুজ নগরী গড়তে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে গাছের চারা বিতরণ করেছে ২২ হাজার। এই সময়ে আইনশৃঙখলা পরিস্থিতিতে ভূমিকা রাখার জন্য রংপুর রেঞ্জ ডিআইজি দেবদাস ভট্রাচার্য, মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার মো আবদুল আলীম মাহমুদ, সাবেক পুলিশ সুপার মিজানুর রহমান প্রধানমন্ত্রী পদক পান।

গত একবছরে মেট্রোপলিট পুলিশ ৬৫ হাজার ১৬২টি মামলা দিয়ে ১ কোটি ৯০ লাখ ৩০ হাজার ৪৪৪ টাকা জরিমানা আদায় করেছে।

সারা দেশের ন্যায় রংপুরেও ডেঙ্গু নিয়ে আলোচনা ছিল। রমেক হাসপাতালে ডেঙ্গু জ¦রে আক্রান্ত ৩ বছরের শিশু রিয়ানা আক্তার মারা যায়।

এটি রমেক হাসপাতালে ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগীর প্রথম মৃত্যু। গতবছর ৩ আগস্ট ডেঙ্গু জ¦রে আক্রান্ত হয়ে ঢাকা থেকে রিয়ানাকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। তিনদিন চিকিৎসাধীন সে মারা যায়।

রংপুরের কাউনিয়া রেলওয়ে জংশন স্টেশনে ট্রেনের ইঞ্জিনের সাথে বগির ধাক্কা লেগে এক কলেজ ছাত্রের মুত্যু ও কমপক্ষে ২৫ জন আহত হয়।

বিষয়টিও গণমাধ্যমে ফলাও করে প্রচার করা হয়। রংপুরের গঙ্গাচড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে দুই মাথা বিশিষ্ট এক শিশুর জন্ম হয়।

উপজেলা স্বাস্থ্যকেন্দ্রে শিশুটি জন্ম নেয়ার কিছুক্ষণ পরেই মারা যায়। বিষয়টি এলাকায় চাঞ্চল্য সৃষ্টি করে।

৮ অক্টোবর রংপুরের গঙ্গাচড়ায় স্বামীর ঝুলন্ত লাশের পাশে স্ত্রীর লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। দুজনের লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।

১৩ অক্টোবর রংপুরে শিশু ধর্ষণের অভিযোগে ধর্ষককের যাবজ্জীবন কারাদ- দিয়েছে আদালত। রংপুর নারীশিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-৩ আদালতের বিচারক মিজানুর রহমান এই রায় ঘোষণা করেন।

রায় ঘোষণার সময় আসামি কাঠগড়ায় উপস্থিত ছিল।

রংপুরের মিঠাপুকুরে ইউনিয়ন পরিষদের শালিস বৈঠকে হাজির না হওয়ার অপরাধে এক বৃদ্ধকে ধরে এনে ইউনিয়ন পরিষদে সারাদিন আটকে রেখে নির্যাতন করেছেন ইউপি চেয়ারম্যান।

উপজেলার বালুয়া মাসিমপুর ইউনিয়নে এই ঘটনা ঘটে। পরে ওই রাতে মিথ্যা অভিযোগ দিয়ে থানায় সোপর্দ করা হয় ও্ই বৃদ্ধকে। এবিষয়টি গণমাধ্যমের দৃষ্টি আকর্ষণ করে।

রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের সদস্য সাদ্দাম হোসেন ও তার সহযোগী মিলন দীর্ঘদিন ধরে মাদক বিক্রির পাশাপাশি বিভিন্ন মাদক ব্যবসায়ীকে জিম্মি করে মুক্তিপণ হিসেবে টাকা আদায় করত।

তবে শেষ রক্ষা হয়নি। ২৫ অক্টোবর রাতে বেরসিক পুলিশের হাতে গ্রেপ্তার হয়েছে তারা দুজন।

নভেম্বরে রংপুরে ঘাঘট নদের তীরে আয়োজিত তিন দিনব্যাপী ইজতেমার আখেরি মোনাজাতে প্রায় চার লাখ মানুষ অংশ নেন। ইজতেমার বিষয়টিও সাধারণ মুসল্লিদের মাঝে প্রভাব ফেলে।

১১ নভেম্বর রংপুরের পীরগাছায় পরকীয়া প্রেমের সন্দেহে এনজিও কর্মী স্ত্রীকে কুপিয়ে হত্যা করে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে স্বামী।

উপজেলার চৌধুরাণী বাজারস্থ ব্র্যাকের শাখা অফিসে ঘটনাটি ঘটে। রুনি ব্র্যাকের চৌধুরাণী শাখার হিসাব রক্ষক হিসেবে কর্মরত ছিলেন।

রংপুর মহানগরীর পুলিশ এক ছাত্রীকে অপহরণের সাথে জড়িতদের গ্রেপ্তার করে তাদের কাছ থেকে নেশার রাজ্যের নতুন চাঞ্চলকর তথ্য পায়।

গ্যাংটি টাইগার গ্যাং নামে এলাকায় পরিচিত। এই গ্যাংয়ের ১৫/২০ জন সদস্য ই- নেশায় আশক্ত। ই নেশা হচ্ছে তাদের নিজেদের তৈরী ঝাঁকি নামক একপ্রকার নেশা জাতীয় পানীয়। এটিও মিডিয়ার নজরকাড়ে।

ডিসেম্বর মাসের ৩০ তারিখে হারাগাছের চাঞ্চল্যকর সেফটি ট্যাংকি থেকে সুমন নামের এক গার্মেন্ট শ্রমিক হত্যাকান্ডের ঘটনায় মুল হোতা ডেকোরেটর ব্যবসায়ী লিয়নকে গ্রেফতার করে পুলিশ। ১১ দিন নিখোঁজের পর সুমনের লাশ উদ্ধার করা হয়।

নভেম্বরের শেষে রংপুর জেলা ও মহানগর আওয়ামী লীগের সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। কমিটিতে আগের সভাপতি ও সম্পাদককেই বহাল রাখা হয়।

জেলার ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মমতাজ উদ্দিন আহমেদকে সভাপতি সাবেক সাধারণ সম্পাদক এ্যাড রেজাউল করিম রাজুকে সাধারণ সম্পাদক হিসেবে ঘোষণা করা হয়। এ ছাড়া মহানগরে সাবেক সভাপতি সাফিয়ার রহমা

ন সফিকে সভাপতি ও সাবেক সাধারণ সম্পাদক তুষার কান্তি মন্ডলকে সাধারণ সম্পাদক ঘোষণা করা হয়।
৭ ডিসেম্বর ঝড় নেই-বৃষ্টি নেই।

হঠাৎ রংপুরের জেলা প্রশাসকের বাসভবনের সামনে শতবর্ষী বিশাল কৃষ্ণচূড়া একটি গাছ উপড়ে পড়েছে। এতে ৩ কলেজছাত্রীসহ আহত হয়েছে ৫ জন।

৮ ডিসেম্বর রংপুরে অটোরিক্সা কেনার টাকা না দেয়ায় গর্ভবতি স্ত্রী, একপুত্র,এক কন্যা সন্তানকে শ্বাসরোধে হত্যা করেছে পাষন্ড স্বামী।

পুলিশ অটোচালক স্বামী আবদুর রাজ্জাককে আটক করেছে। এ ছাড়া রংপুরে জেলা পুলিশের আহবানে সারা দিয়ে ভয়াবহ মাদকের অন্ধকার থেকে আলোর পথে এসেছে অনেক মাদক ব্যবসায়ী ও মাদকসেবী।

মাদক ব্যবসায়ীদের আত্মসর্মপনের আহবান জানান জেলা পুলিশ।

১৭ ডিসেম্বর রংপুর মহানগরীর কাচারি বাজারে অবস্থিত জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ম্যুরালে বিজয় দিবসের পুষ্পমাল্য তছনছ ও পদদলন করা হয়েছে।

পুষ্পমাল্যে ব্যবহৃত একাধিক বাঁশের ফালটিসহ দুইজনকে আটক করে পুলিশ। ওই দিন সন্ধ্যায় এ বিষয়ে মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার তার কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলন করেন।

সব শেষে বলা চলে রংপুরসহ সারা দেশে বয়ে চলছে শৈত প্রবাহ। রংপুরে শীতের প্রথম ছোবল থেকে বাচতে আগুন তাপাতে গিয়ে এ পর্যন্ত ৫ জনের মৃত্যু হয়েছে। এখনও দগ্ধ অবস্থায় ২৫ জন।

আরও পড়ুনঃ