গরুর মাংসে হাড় বেশি, সংঘর্ষে আহত ৪০

গরুর মাংসে হাড় বেশি, সংঘর্ষে আহত ৪০
গরুর মাংসে হাড় বেশি, সংঘর্ষে আহত ৪০

গরুর মাংসে হাড় বেশি দেওয়া নিয়ে ক্রেতা-বিক্রেতার বাক-বিত-ার জেরে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার দুই গ্রামের বাসিন্দাদের সংঘর্ষে শিশু ও পুলিশসহ ৪০ জন আহত হয়েছেন। সকালে প্রায় এক ঘণ্টা ধরে এই সংঘর্ষের সময় ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের খাঁটিহাতা বিশ্বরোড মোড় কার্যত রণক্ষেত্রে পরিণত হয়।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর মডেল থানার ওসি সেলিম উদ্দিন জানান, সদর উপজেলার খাঁটিহাতা ও সরাইল উপজেলার কুট্টাপাড়া গ্রামের বাসিন্দাদের মধ্যে এই সংঘর্ষের কারণে সকাল ১০টা থেকে বেলা ১১টা পর্যন্ত ঢাকা-সিলেট মহাসড়কে যান চলাচল বন্ধ থাকে। ফলে মহাসড়কের দুই পাশে তীব্র যানজটের সৃষ্টি হয়।

আহতদের সরাইল উপজেলা স্বাস্ব্য কমপ্লেক্স ও জেলা সদর হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে বলে জানিয়েছে পুলিশ। স্থানীয় বাসিন্দাদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, সরাইল উপজেলার কুট্টাপাড়া গ্রামের এক ব্যক্তি সকালে খাঁটিহাতা বিশ্বরোড মোড়ে এক দোকানে মাংস কিনতে যান। সেখানে মাংসে হাড় বেশি দেওয়া নিয়ে দোকানীর সঙ্গে ওই ব্যক্তির কথা কাটাকাটি হয়।

এর জের ধরে ক্রেতা ও বিক্রেতা দুই পক্ষ নিজের গ্রামের লোকজন জড়ো করে দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। খবর পেয়ে সদর মডেল থানা ও সরাইল থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে রাবার বুলেট ও টিয়ার গ্যাসের শেল ছুড়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

সরাইল থানার ওসি মফিজ উদ্দিন জানান, ঘণ্টাব্যাপী এ সংঘর্ষে চার পুলিশ সদস্যসহ অন্তত ৪০ জন আহত হন। আহত পুলিশ সদস্যরা হলেন- ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর মডেল থানার এসআই প্রেমধন, এএসআই নিয়ামত উল্লাহ এবং কন্সটেবল শামসুল ও মাহবুব। সদর মডেল থানার ওসি সেলিম উদ্দিন বলেন, “বর্তমানে পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে। ঘটনাস্থলে বাড়তি পুলিশ মোতায়েন রাখা হয়েছে।”

আপনার মতামত লিখুনঃ