কষ্টের জয়ে চারে আর্সেনাল

কষ্টের জয়ে চারে আর্সেনাল
কষ্টের জয়ে চারে আর্সেনাল

ম্যাচের শুরুতে এগিয়ে যাওয়া আর্সেনাল পরে আর ব্যবধান বাড়িয়ে নিতে পারেনি। তবে ওয়াটফোর্ডের বিপক্ষে পাওয়া কষ্টের জয়ে ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের পয়েন্ট তালিকায় চতুর্থ স্থানে উঠে এসেছে উনাই এমেরির দল।
প্রতিপক্ষের মাঠে সোমবার ১-০ গোলে জিতে আর্সেনাল। ৩৩ ম্যাচে ২০ জয় ও ছয় ড্রয়ে ৬৬ পয়েন্ট নিয়ে গোল পার্থক্যে চেলসিকে পেছনে ফেলেছে গানাররা।

গত সেপ্টেম্বরে লিগের প্রথম পর্বে নিজেদের মাঠে ওয়াটফোর্ডকে ২-০ গোলে হারিয়েছিল আর্সেনাল।
দশম মিনিটে ওয়াটফোর্ড গোলরক্ষকের ভুলে এগিয়ে যায় অতিথিরা। সতীর্থের ব্যাক পাস নিয়ন্ত্রণে নিয়েও ঠিকঠাক বিপদমুক্ত করতে পারেননি বেন ফস্টার। তার শট নেওয়ার সময় দ্রুত দৌড়ে গিয়ে পা চালিয়ে দেন পিয়েরে-এমেরিক আউবামেয়াং। বল ফরাসি ফরোয়ার্ডের পায়ে লেগে জালে জড়ায়। লিগে আউবামেয়াংয়ের এটি ১৮তম গোল।

পরের মিনিটের ধাক্কায় ওয়াটফোর্ড আরও কোণঠাসা হয়ে পড়ে। লুকাস তররেইরার মাথায় ট্রয় ডেনের কনুই লাগলে রেফারি সরাসরি লালকার্ড দেখান। পাশাপাশি দৌড়ানোর সময় তররেইরার মাথা নিজের কনুই বরাবর ছিল বলে রেফারির সিদ্ধান্তে অসন্তোস জানিয়ে মাঠ ছাড়েন ওয়াটফোর্ড অধিনায়ক।
দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতে তররেইরাকে তুলে নিয়ে মেসুত ওজিলকে নামান আর্সেনাল কোচ। কিন্তু ওয়াটফোর্ডের রক্ষণ ভেদ করে ব্যবধান বাড়িয়ে নিতে পারছিল না বলের নিয়ন্ত্রণ ও আক্রমণে এগিয়ে থাকা গানাররা। ৫৪তম মিনিটে আউবামেয়াংয়ের শট দূরের পোস্ট দিয়ে বেরিয়ে যায়। তিন মিনিট পর হেনরিখ মিখিতারিয়ানের শট ফেরান ফস্টার।

রোববার চেলসিকে ২-০ গোলে হারানো লিভারপুল ৩৪ ম্যাচে ২৬ জয় ও সাত ড্রয়ে ৮৫ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে রয়েছে। ২ পয়েন্ট কম নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে নেমে গেছে ক্রিস্টাল প্যালেসের মাঠে ৩-১ গোলে জেতা ম্যানচেস্টার সিটি। পেপ গুয়ার্দিওলার দল অবশ্য এক ম্যাচ কম খেলেছে।
শনিবার ব্রাজিলিয়ান মিডফিল্ডার লুকাস মউরার হ্যাটট্রিকে হাডার্সফিল্ড টাউনকে ৪-০ গোলে হারানো টটেনহ্যাম হটস্পার ৩৩ ম্যাচে ৬৭ পয়েন্ট নিয়ে তৃতীয় স্থানে আছে। আর্সেনালের সমান পয়েন্ট (৬৬) নিয়ে গোল পার্থক্যে পিছিয়ে পঞ্চম স্থানে নেমে গেছে এক ম্যাচ বেশি খেলা চেলসি।

৩৩ ম্যাচে ১৯ জয় ও সাত ড্রয়ে ৬৪ পয়েন্ট নিয়ে ষষ্ঠ স্থানে আছে শনিবার ওয়েস্ট হ্যাম ইউনাইটেডের বিপক্ষে ২-১ গোলে জেতা ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড।