করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে রংপুর জেলা প্রশাসনের সুরক্ষা সামগ্রী বিতরণ

জেলা প্রশাসনের সুরক্ষা সামগ্রী বিতরণ.

স্টাফ রিপোর্টার: করোনা ভাইরাস মহামারী সংক্রমণ প্রতিরোধে ইউএনডিপি এর কার্যকর ও জবাবদিহিমূলক স্থানীয় সরকার (ইএএলজি) প্রকল্পের সহযোগিতায় রংপুর জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে উপজেলা পরিষদ ও ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান, ইউপি সদস্য, ইউপি সচিব, হিসাব সহকারী কামকম্পিউটার অপারেটর, গ্রাম পুলিশ, উদ্দ্যেক্তা, ইউনিয়ন পর্যায়ের করোনা প্রতিরোধ কমিটি, ওয়ার্ড কমিটি, স্থায়ী কমিটির সদস্য এবং ইউনিয়ন পর্যায়ের কমিউনিটি ক্লিনিক ব্যবস্থাপনা কমিটির সদস্যদের মাঝে করোনা প্রতিরোধে গতকাল রোববার সকালে জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে স্বাস্থ্য সুরক্ষা সামগ্রী বিতরণ করা হয়।

বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন রংপুরের জেলা প্রসাশক মো: আসিব আহসান। প্রধান অতিথি বলেন করোনাকালীন স্থানীয় জনপ্রতিনিধিগণ বিশেষকরে ইউনিয়ন পরিষদের জনপ্রতিনিধিগণ ইউনিয়ন পর্যায়ে সুবিধাভোগীদের তালিকা তৈরী, খাদ্য সামগ্রী বিতরণ, হোম কোয়ারিন্টিন নিশ্চিতকরণ, স্থানীয় জনসাধানের মাঝে সচেতনতা তৈরীর কাজ সমূহ নিরলসভাবে করে যাচ্ছেন। এই সমস্ত ঝুঁকিপূর্ণ কাজ করতে গিয়ে ইত্যেমধ্যেই অনেক জনপ্রতিনিধি এবং কর্মচারীগণ করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। তিনি স্থানীয় জনপ্রতিধি, সরকারী কর্মকর্তা ও কর্মচারীগণের মাঝে সময়োপযোগী এইসব স্বাস্থ্য সুরক্ষা সামগ্রী বিতরণ করার জন্য ইউএনডিপিকে জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন স্থানীয় সরকার বিভাগের উপ পরিচালক সৈয়দ ফরহাদ হোসেন, রংপুর। অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন স্থানীয় সরকারের সহকারী পরিচালক রেহেনুমাতারান্নুম, বিভিন্ন ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান, ইউপি সচিব এবং ইউএনডিপি এর ইএএলজিপ্রজেক্টের ডিস্ট্রিক্ট ফ্যাসিলিটিটের মো: মতিউর রহমান।

ইএএলজি প্রজেক্টের ডিস্ট্রিক্ট ফ্যাসিলিটিটের মো: মতিউর রহমান বলেন করোনা প্রতিরোধে আত্মবিশ্বাস বৃদ্ধির লক্ষ্যে উপজেলা ও ইউনিয়ন পর্যায়ের জনপ্রতিনিধি,কর্মকর্তা ও কর্মচারী সর্বমোট ৯২৬ জনের মাঝে (পিপিই + গামবুট + চশমা + হ্যান্ডগøাভস + হ্যান্ড স্যানিটাইজার + কেএন ৯৫ মাস্ক) বিতরণ করা হবে। এছাড়াও করোনা প্রতিরোধে ইউনিয়ন পর্যায়ের করোনা প্রতিরোধ কমিটি, ওয়ার্ড কমিটি, স্থায়ী কমিটি এবং কমিউনিটি ক্লিনিক ব্যবস্থাপনা কমিটির সদস্য মোট ৪৭৩৪ জনের মাঝে ৪৭৩৪টি কেএন ৯৫ মাস্ক, ৪৭৩৪ জোড়া হ্যান্ডগøাভস, ৯৪৬৮ টি সার্জিক্যাল মাস্ক, ৪৭৩৪ বোতল হ্যান্ড স্যানিটাইজার এবং ৯৪৬৮ টি স্যাভলন সাবান বিতরণ করা হবে। স্বাস্থ্য সুরক্ষা এবং স্বাস্থ্যাভ্যাস গড়ে তোলার লক্ষ্যে জেলার ৩০টি ইউনিয়ন পরিষদের জনবহুল স্থানে ২টি করে হ্যান্ডওয়াস ডিভাইস স্থাপন করা হয়েছে। উক্ত হ্যান্ডওয়াস ডিভাইসগুলো সর্বোক্ষণ সচল রাখার জন্য প্রতিটি হ্যান্ডওয়াস পয়েন্টে একজন করে স্বেচ্ছাসেবক নিয়োগ করা আছে । যিনি হ্যান্ডওয়াসগুলোতে পানি সরবরাহ এবং সাবান নিশ্চিত করবেন এবং একই সাথে করোনা মহামারী বিষয়ে জনসচেতনতা তৈরীর লক্ষ্যে মাইকিং কার্যক্রম চলমান আছে।

আপনার মতামত লিখুনঃ