কঠোর নিরাপত্তার মধ্যে নির্বাচনী সরজ্ঞাম বিতরন

কঠোর নিরাপত্তার মধ্যে নির্বাচনী সরজ্ঞাম বিতরন শুরু

শনিবার রংপুর সদর ৩ আসনের উপ নির্বাচন। নির্বাচন উপলক্ষে ১৭৫টি ভোট কেন্দ্রের সকল ভোট কেন্দ্রে ইভিএম মেশিন সহ নির্বাচনী সরজ্ঞাম পাঠানো শুরু হয়েছে। বেলা ১১ টা থেকে পুলিশ হল থেকে নির্বাচনী সরজ্ঞাম সরবরাহ করা শুরু করেছে নির্বাচন কমিশন। কঠোর পুলিশী পাহারায় এসব সরজ্ঞাম প্রিজাইডিং অফিসারের নেতৃত্বে ভোট কেন্দ্রে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে।

নির্বাচন কমিশন সুত্রে জানা গেছে রংপুর সদর ৩ আসনের নির্বাচন আর মাত্র কয়েক ঘন্টার অপেক্ষা। ৫ অক্টোবর সকাল ৯ টা থেকে ভোট গ্রহন শুরু হবে।

সে কারণে শুক্রবার বেলা ১১ টা থেকে ভোট কেন্দ্রে ইভিএম মেশিন সহ সকল নির্বাচনী সামগ্রী বুঝে নিয়ে প্রিজাইডিং অফিসারের নেতৃত্বে পুলিশ ও ভিডিপির সদস্যরা স্ব স্ব ভোট কেন্দ্রে ট্রাকে করে মালামাল নিয়ে যাচ্ছেন। এজন্য কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহন করা হয়েছে।

রংপুর পুলিশ হল ও পুলিশ লাইনে নির্বাচনী মালামাল নেবার জন্য ব্যবস্থা গ্রহন করেছে নির্বাচন কমিশন। সকাল থেকে প্রতিটি ভোট কেন্দ্রে নির্বাচনী সরজ্ঞাম নেবার জন্য প্রিজাইডিং অফিসারের নেতৃত্বে পুলিশ আনসার সহ নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যরা মালামাল বুঝে নিয়ে ট্রাকে করে স্ব স্ব ভোট কেন্দ্রে নিয়ে যাচ্ছে।

এ ব্যাাপারে সদর থানার ওসি সাজেদুল ইসলাম জানান প্রতিটি ভোট কেন্দ্রে যাতে নির্বাচনী মালামাল পৌছে যায় সে জন্য প্রতিটি ট্রাকে প্রিজাইডিং অফিসারের নেতৃুত্বে পর্যাপ্ত পুলিশ ও আনসার বাহিনী সদস্য থাকছেন।

এ ছাড়াও পুলিশের পেট্রোলিং থাকবে। তিনি জানান রাতে প্রতিটি ভোট কেন্দ্রে নির্বাচনের সাথে সংশ্লিষ্ঠ সকল কর্মকর্তা কর্মচারী ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা ভোট কেন্দ্রে অবস্থান করবেন তাদের নিরাপত্তার জন্য সকল ব্যবস্থা গ্রহন করা হয়েছে।

এদিকে হরিদেবপুর স্কুল ভোট কেন্দ্রের প্রিজাইডিং কর্মকর্তা সালাম জানান তিনি ইভিএম মেশিন সহ সকল নির্বাচনী সরজ্ঞাম বুঝে নিয়ে তার ভোট কেন্দ্রের দায়িত্ব পাওয়া পুলিং কর্মকর্তা সহ অন্যান্য দের নিয়ে পুলিশ ও আনসার বাহিনীর সহায়তায় ভোট কেন্দ্রে যাচ্ছেন।

সেখানেই রাত্রি যাপন করে সকালে ভোট গ্রহন করবেন। ভোট গ্রহন শেষে ইভিএমের মাধ্যমে ফলাফল ঘোষনা করবেন বলে জানান। একই কথা জানান কদম তলা ভোট কেন্দ্রের প্রিজাইডং কর্মকর্তা আনোয়ারুল ইসলাম।

এদিকে রংপুরের পুলিশ সুপার বিপ্লব কুমার বললেন প্রতিটি ভোট কেন্দ্রে কঠোর নিরাপত্তা ব্যাবস্থা গ্রহন করা হয়েছে। ভোট কেন্দ্রে নিরাপত্তার পাশাপাশি ভোটাররা নিরাপদে যাতে ভোট কেন্দ্রে এসে আবারো নিরাপদে বাসায় ফিরে যেতে পারে সে জন্য ষ্টাইকিং এবং মোবাইল টীম সারাক্ষন পেট্রোল ডিউটি করবে।

অপরদিকে রিটানিং কর্মকর্তা জিএম শাহাতাব উদ্দিন বলেছেন নির্বাচনী সরজ্ঞাম নিয়ে প্রিজাইডিং অফিসারের নেতৃত্বে পুলিশ আনসার সহ নির্বাচন কর্মকর্তারা ভোট কেন্দ্রে মালামাল সহ রাত্রি যাপন করবে। শনিবার সকাল ৯ থেকে বিকেল ৫ টা পর্যন্ত বিরতীহিন ভাবে ভোট গ্রহন করা হবে। তিনি ভোটারদের ভোট কেন্দ্রে উৎসব মুখর পরিবেশে ভোট দেবার আহবার জানান।

উল্লেখ্য রংপুর সদর ৩ আসনে মোট ভোটার ৪ লাখ ৪১ হাজার ২২৪জন। এদের মধ্যে পুরুষ ভোটার ২ লাখ ২০ হাজার ৮২৩জন এবং নারী ভোটার ২ লাখ ২০ হাজার ৪০১জন। নির্বাচনে জাতীয় পার্টি বিএনপি সহ ৭ জন প্রার্থী প্রতিদন্দ্বিতা করছেন।

আপনার মতামত লিখুনঃ