ইমরান খানের বক্তব্যের প্রতি মালয়েশিয়া ও চীনের সমর্থন

ইমরান খানের বক্তব্যের প্রতি মালয়েশিয়া ও চীনের সমর্থন

পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান ভারত নিয়ন্ত্রিত কাশ্মীর ইস্যুতে জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের ৭৪তম বার্ষিক অধিবেশনে যে বক্তব্য দিয়েছেন তার প্রতি সমর্থন ব্যক্ত করেছে মালয়েশিয়া ও চীন। মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী মাহাথির মোহাম্মদ গত শনিবার বলেছেন, জাতিসংঘে প্রস্তাব পাস হওয়ার পরও কাশ্মীরে আগ্রাসন চালানো হয়েছে এবং দখল করা হয়েছে।

অন্যদিকে, চীনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ওয়াং ই জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদে পাস হওয়া প্রস্তাবের ভিত্তিতে কাশ্মীর ইস্যুকে শান্তিপূর্ণভাবে সমাধানের আহ্বান জানিয়েছেন। জাতিসংঘে দেয়া প্রথম ভাষণে পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান গত শুক্রবার কাশ্মীর ইস্যু তুলে বলেন, বিশ্বকে সিদ্ধান্ত নিতে হবে ১২০ কোটি মানুষের বাজারকে তারা প্রাধান্য দেবে, নাকি ন্যায় বিচার ও মানবতাকে প্রাধান্য দেবে।

এরপর মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী মাহাথির মোহাম্মদ কাশ্মীর, ফিলিস্তিন, মিয়ানমারসহ বিশ্বের বিভিন্ন এলাকায় মুসলমানদের দুর্দশার কথা তুলে ধরেন। তিনি শান্তিপূর্ণ উপায়ে কাশ্মীর সমস্যার সমাধানের আহ্বান জানান তবে দুঃখ প্রকাশ করে বলেন, কাশ্মীরে আগ্রাসন চালানো হয়েছে এবং দখল করে নেয়া হয়েছে। তিনি বলেন, এর পেছনে যতই কারণ দেখানো হোক না কেন এটি ভুল সিদ্ধান্ত।

মাহাথির মোহাম্মাদ সতর্ক করে বলেন, জাতিসংঘকে উপেক্ষা করার অর্থ হবে জাতিসংঘ ও আইনের শাসনকে অসম্মান করা। এদিকে, শুক্রবার জাতিসংঘ অধিবেশনে দেয়া ভাষণে চীনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ওয়াং ই কাশ্মীর ইস্যু তুলে ধরে ভারত ও পাকিস্তানের মধ্যে এ সমস্যার শান্তিপূর্ণ সমাধানের আহ্বান জানান। তিনি বলেন, কাশ্মীর ইস্যুতে চীন যেকোনো একতরফা পদক্ষেপের বিরোধিতা করে কারণ এতে পরিস্থিতি আরও বেশি জটিল হবে।

আপনার মতামত লিখুনঃ