ইতিহাসে প্রতিদিন আজ (শনিবার) ০৭ সেপ্টেম্বর’২০১৯

১৮২২ খ্রীষ্টাব্দের এই দিনে ব্রাজিল পর্তুগালের কাছ থকে স্বাধীনতা লাভ করে। ফলে ব্রাজিলে প্রতি বছর এ দিনটি স্বাধীনতা দিবস হিসাবে পালিত হয়। ১৪৯৪ সালে পর্তুগীযরা এ দেশে তাদের আধিপত্য বিস্তার করে। তারা আফ্রিকার লক্ষ লক্ষ কৃষ্ণাঙ্গকে দাস হিসাবে ব্রাজিলে ধরে আনে এবং সেখানকার চাষাবাদে কাজে লাগায়।

তারা স্থানীয় রেড ইন্ডিয়ানদের উপরও অকথ্য নির্যতন চালায় এবং তাদেরকে নিজেদের সেবাদাসে পরিণত করে। কিন্তু উনবিংশ শতাব্দীর শুরুর দিকে নেপোলিয়ান বোনাপার্ট পর্তুগাল দখল করে নিলে পর্তুগীয স¤্রাট স্বপরিবারে ব্রাজিলে পালিয়ে যান এবং সেখানকার পরিস্থিতি অস্থিতিশীল হয়ে ওঠে।

নেপোলিয়ানের পর্তুগীয স¤্রাট পূণরায় স্বদেশে ফিরে যান। কিন্তু তার ছেলে স¤্রাটের প্রতিনিধি হিসাবে ব্রাজিলের শাসন ক্ষমতা গ্রহণ করেন। ১৪ বছর পর এই দিনে তিনি ব্রাজিলকে স্বাধীন ও সার্বভৌম রাষ্ট্র হিসাবে ঘোষণা করে নিজেকে এ স্বাধীন দেশের স¤্রাট নিযুক্ত করেন। ১৮৮৯ সালে ব্রাজিলে প্রজাতন্ত্রী ব্যবস্থা প্রতিষ্ঠিত হয়। ব্রাজিলের আয়তন ৮০ লক্ষ। এটি আটলান্টিক মহাসাগরের তীরে অবস্থিত। এর প্রতিবেশী দেশগুলোর মধ্যে আর্জেন্টিনা, প্যারাগুয়ে ও উরুগুয়ে অন্যতম।

ফার্সী ১৩৫৭ সালের ১৭ই শাহরিভার ইরানের স্বৈরাচারী শাহ সরকারের অনুগত সেনা বাহিনী ইরানের রাজধানী তেহরানে জনতার বিশাল মিছিলের উপর নির্বিচারে গুলি চালিয়ে রাজপথে রক্তের বন্যা বইয়ে দেয়। ঐ দিন খুব ভোর থেকেই মানুষ শাহ বিরোধী মিছিলে অংশ নেবার জন্য রাজপথে জড়ো হতে থাকে।

তৎকালীন শাহ সরকার বিক্ষোভ দমনের জন্য জরুরী অবস্থা ঘোষণা করে। জনগণ সরকারের বিধিনিষেধ উপেক্ষা করে সড়ক ও মহাসড়কগুলোতে সেনা বাহিনীর অবস্থান সত্ত্বেও রাজপথে নেমে আসে এবং বিক্ষোভে ফেটে পড়ে। তারা শাহের স্বৈরাচারী নীতির বিরুদ্ধে শ্লোগান দিতে থাকে।

এ সময় সেনা বাহিনী চতুর্দিক থেকে মিছিলের উপর গুলি চালাতে থাকে। এতে খুব অল্প সময়ের মধ্যে চার হাজার মানুষ মৃত্যুর কোলে ঢোলে পড়ে এবং শতশত লোক আহত হয়। এ জন্যই ফার্সী ১৩৫৭ সালের এই দিনকে রক্তাক্ত শুক্রবার ও শহীদ দিবস হিসাবে ঘোষণা করা হয়।

স্বৈরাচারী শাহ সরকার ভেবেছিল এ গণহত্যার মাধ্যমে তেহরানের জনগণের মধ্যে ভয়-ভীতি ও ত্রাসের সৃষ্টি হবে এবং তারা শাহ বিরোধী আন্দোলন থেকে বিরত থাকবে। কিন্তু এ হত্যাযজ্ঞ শাহ বিরোধী আন্দোলনকে আরো বেগবান করে তোলে। ইরানের ইসলামী বিপ্লবের স্থপতি মরহুম ইমাম খোমেনী(র:) রক্তাক্ত শুক্রবার উপলক্ষ্যে দেয়া এক বাণীতে বলেন, আমিও যদি তোমাদের মাঝে থেকে আল্লাহর পথে নিজেকে উৎসর্গ করতে পারতাম! হে ইরানী জাতি বিজয় আপনাদের সুনিশ্চিত।

ইংল্যান্ডের রাণী প্রথম এলিজাবেথের জন্ম (১৫৩৩)
ব্রাজিলের স্বাধীনতা ঘোষণা (১৮২২)
সিনেমার পুরোধা উইলিয়াম গ্রিনের জন্ম (১৮৫৫)
মোহাম্মদ আলী পাশা আলবেনীয় আততায়ীদের হাতে নিহত (১৮৭৮)
দালাইলামার সঙ্গে ব্রিটেনের চুক্তি স্বাক্ষর (১৯০৪)
দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে ইতালির আত্মসমর্পণ (১৯৪৩)
বিপ্লবী সুরেন্দ্রমোহন ঘোষের মৃত্যু (১৯৭৬)
ঐতিহাসিক নিশীথরঞ্জন রায়ের মৃত্যু (১৯৯৪)

আপনার মতামত লিখুনঃ