ইতিহাসের এই দিনে আজ (০৯ সেপ্টেম্বর) সোমবার ২০১৯

৫৭২ খ্রীস্টাব্দের এই দিনে তৎকালীন দুই পরাশক্তি ইরান ও রোম সা¤্রাজ্যের মধ্যে তীব্র যুদ্ধ শুরু হয়। রোম স¤্রাট ‘যুস্ব্জ€Œতি নিন’ ইরানের পশ্চিমাঞ্চল দখল করার জন্য হামলা চালালে ঐ যুদ্ধ শুরু হয়। সাত বছর ধরে ঐ যুদ্ধ চলে। ঐ যুদ্ধে রোম বাহিনী পরাজিত হলে রোম স¤্রাট পদত্যাগ করতে বাধ্য হন। যুদ্ধে পরাজিত হয়ে রোম সরকার ইরানকে ৪৫ হাজার স্বর্ণ মুদ্রা ক্ষতিপূরণ দিতে রাজি হওয়ায় ৫৭৯ খ্রীস্টাব্দে যুদ্ধের পরিসমাপ্তি ঘটে।

১৯৪৫ সালের এই দিনে চীন দখলকারী জাপানী বাহিনী আত্মসমর্পন করার পর একটি চুক্তি স্বাক্ষর করে। ঐ চুক্তির ফলে জাপানের স¤্রাট হিরো হিতোর নির্দেশে জাপানী সেনারা অস্ত্র সংবরণ করলে জাপান ও চীনের মধ্যকার ঐতিহাসিক যুদ্ধের পরিসমাপ্তি ঘটে। এটা ছিল চীনের কমিউনিষ্টপন্থী সশস্ত্র বাহিনী ও সরকারী সেনাদের জন্য বড় বিজয়। কিন্তু চীনের মাটি থেকে জাপানকে বিতাড়িত করার পর চীনে কমিউনিষ্টপন্থী ও সরকারী সেনাদের মধ্যে লড়াই শুরু হয় এবং ঐ লড়াই এ সরকারী বাহিনী পরাজিত হলে কমিউনিষ্টপন্থীরা ক্ষমতা গ্রহণ করে সেখানে কমিউনিজম শাসন ব্যবস্থা কায়েম করে।

১৯৪৮ সালের এই দিনে উত্তর কোরিয়া স্বাধীনতা ঘোষণা করে। কোরিয়ার দীর্ঘ ইতিহাসে এ ভূখ-টি বহুবার বিদেশীদের হামলার শিকার হয়েছে। ১৯০৫ সালে জাপান চীনকে পরাজিত করার পর কোরিয়া দখল করে নেয়। এরপর দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধ শেষ হওয়ার আগ পর্যন্ত কোরিয়ার উপর বিদেশীদের দখলদারিত্ব অব্যাহত থাকে।

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধ চলাকালে কোরিয়া ও চীনের স্বাধীনতাকামী জনতা জাপানের বিরুদ্ধে আন্দোলন গড়ে তোলে এবং মিত্র বাহিনী তাদের স্বাধীনতা আন্দোলনের প্রতি সমর্থন জানানয়। কিন্তু ১৯৪৫ সালে এক চুক্তি অনুযায়ী সোভিয়েত ইউনিয়ন উত্তর কোরিয়া ও যুক্তরাষ্ট্র দক্ষিণ কোরিয়ার উপর নিয়ন্ত্রণ প্রতিষ্ঠা করে। এরপর দক্ষিণ কোরিয়া স্বাধীনতা ঘোষণা দেয়ার এক মাস পর আজকের এই দিনে উত্তর কোরিয়াও স্বাধীনতা ঘোষণা করে।

১৯৭৬ সালের এই দিনে চীনা নেতা মাও সেতুং মৃত্যুবরণ করেন। ১৮৯৩ সালে তিনি জন্ম গ্রহণ করেন এবং ১৯২১ সালে সমমনা ব্যক্তিদেরকে সাথে নিয়ে তিনি চীনে কমিউনিষ্ট দল গঠন করেন। তিনি কৃষকদের উন্নতির জন্য চেষ্টা চালানোর কারণে ব্যাপক জন সমর্থন পান। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পর মাও সেতুং এর নেতৃত্বে কমিউনিষ্ট পন্থীরা পশ্চিমাপন্থী সরকারকে উৎখাত করে এবং ১৯৪৫ সালে পিপলস রিপাবলিক অব চীন প্রতিষ্ঠা করে। মাওসেতুং তার শাসনামলে একটি শক্তিশালী কেন্দ্রীয় শাসন ব্যবস্থা গড়ে তুলতে সক্ষম হন।

ফার্সী ১৩৫৮ সালের এই দিনে ইরানের খ্যাতনামা আলেম আয়াতুল্লাহ সাইয়্যেদ মাহমুদ তালেকানী ইন্তেকাল করেন। তিনি ফার্সী ১২৮৪ সালে তালেকান গ্রামে জন্ম গ্রহণ করেন। আয়াতুল্লাহ তালেকানী তরুণ বয়সেই ইরানসহ বিশ্ব রাজনীতির সাথে পরিচিত হন এবং শাহ বিরোধী আন্দোলনে যোগ দেয়ার কারণে দুই বছর কারাভোগ করেন। এরপর ইরানে ইসলামী বিপ্লব সংঘটিত হওয়ার আগ পর্যন্ত তিনি বহুবার নির্বাসন ও কারাভোগ করেছেন। বিপ্লব বিজয়ের পর ইমাম খোমেনী (র:) এ নির্দেশে তিনি বিপ্লবী পরিষদের প্রধান ও তেহরানে জুমার নামাজের ইমামতের দায়িত্ব লাভ করেন।

১৯৯১ সালের এই দিনে তাজিকিস্তান স্বাধীনতা লাভ করে। খ্রিস্টপূর্ব ছয় শতাব্দীতে তাজিকিস্তান ইরানের হাখামানেশিয় শাসনের অধিনে ছিল। এরপর নবম খ্রিস্টাব্দে মুসলমানরা তাজিকিস্তান জয় করে। ১৯ শতকে এসে তাজিকিস্তানে রুশদের প্রভাব বিস্তার শুরু হয় এবং এক পর্যায়ে রাশিয়া গোটা তাজিকিস্তানের উপর তাদের নিয়ন্ত্রণ প্রতিষ্ঠা করে।

২০০১ সালের এই দিনে আফগানিস্তানের অস্থায়ী সরকারের প্রধান বোরহান উদ্দীনের প্রতিরক্ষামন্ত্রী আহমেদ শাহ মাসুদ নিহত হন। তিনি ১৯৫২ সালে জন্ম গ্রহণ করেন এবং আফগানিস্তানে কমিউনিষ্ট সরকার ক্ষমতায় আসার পর ও ১৯৭৯ সালে সোভিয়েত বাহিনী আফগানিস্তানে সেনা সমাবেশ করলে আহমেদ শাহ মাসুদ পাঞ্জশির পাহাড়ি এলাকায় থেকে বিদেশী সেনাদের বিরুদ্ধে গেরিলা বাহিনী গড়ে তোলেন ও সেখান থেকে গেরিলা যুদ্ধ পরিচালনা করেন। তিনি তার জীবনের শেষ বছরগুলোতে মার্কিন ও পাকিস্তান সমর্থিত তালেবানদের বিরুদ্ধে জোটের নেতৃত্ব দেন।

স্কটল্যান্ডের রাজা চতুর্থ জেমস ব্রিটিশদের সাথে ফ্লাডেন যুদ্ধে নিহত (১৫১৩)
আলীগড়ের অ্যাংলো ওরিয়েন্টাল কলেজ আলীগড় মুসলিম বিশ্ববিদ্যালয়ে রূপান্তীরত (১৯২০)
ইরাকের রাজা আমির ফয়সল আততায়ীর হাতে নিহত (১৯৩৩)
সোফিয়ায় গণঅভ্যুত্থান (১৯৪৪)
উত্তর-দক্ষিণ কোরিয়ার স্বাধীনতা ঘোষণা (১৯৪৮)
কাশ্মিরের জাতীয়তাবাদী নেতা শেখ আবদুল্লাহর মৃত্যু (১৯৮২)
তাজিকিস্তানের স্বাধীনতা ঘোষণা (১৯৯১)
চীনে টাইফুনে ১৩০ জন নিহত । আহত কয়েক হাজার (১৯৯৬)

আপনার মতামত লিখুনঃ