আইএসের বাংলাদেশ ও পশ্চিমবঙ্গে হামলার হুমকি

আইএসের বাংলাদেশ ও পশ্চিমবঙ্গে হামলার হুমকি
আইএসের বাংলাদেশ ও পশ্চিমবঙ্গে হামলার হুমকি

মধ্যপ্রাচ্যভিত্তিক জঙ্গি গোষ্ঠী ইসলামিক স্টেট (আইএস) বাংলাদেশ এবং পশ্চিমবঙ্গে হামলার হুমকি দিয়ে একটি পোস্টার প্রকাশ করেছে বলে জানিয়েছে টাইমস অব ইন্ডিয়া।

ভারতের গোয়েন্দা সূত্রের বরাত দিয়ে শনিবার পত্রিকাটি জানিয়েছে, আইএস  সমর্থিত একটি টেলিগ্রাম চ্যানেলে ওই হামলার হুমকি দেওয়া হয়েছে। চ্যানেলে বাংলা ভাষায় একটি পোস্টারও প্রকাশ করা হয়েছে যাতে লেখা হয়েছে- ‘শিগগিরই আসছি ইনশাআল্লাহ’।

পোস্টারে ‘আল মুরসালাত’ নামে একটি গ্রুপের লোগোও ছিল। বৃহস্পতিবার রাতে এই পোস্টার প্রকাশিত হয়েছে। তবে টাইমস অব ইন্ডিয়া আইএসের বাংলায় লেখা সেই পোস্টারটি তাদের প্রতিবেদনে প্রকাশ করেনি।

ভারতের গোয়েন্দা সূত্রের বরাত দিয়ে টাইমস অব ইন্ডিয়া বলেছে, শ্রীলঙ্কায় হামলার পর ওই হুমকি দিয়ে পোস্টার প্রকাশের বিষয়টি গুরুত্বের সঙ্গে খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

গত ২১ এপ্রিল ইস্টার সানডেতে শ্রীলঙ্কার তিনটি চার্চ ও কয়েকটি হোটেলে ভয়াবহ আত্মঘাতী বোমা হামলায় আড়াই শতাধিক মানুষের মৃত্যু ঘটেছে। আইএস ওই হামলার দায় স্বীকার করেছে।

টাইমস অব ইন্ডিয়ার প্রতিবেদন অনুযায়ী, জামাত উল মুজাহিদিনের (জেএমবি) সঙ্গে আইএসের সংশ্লিষ্টতা রয়েছে। জেএমবিকে তাদের দলে সদস্য নিয়োগের জন্য কলকাতা ও পশ্চিমবঙ্গে মাঝে মাঝেই তাদের তৎপর হতে দেখা যায়।

এ বছরের ফেব্রুয়ারিতে কলকাতার বাবুঘাট এলাকা থেকে আরিফুল ইসলাম নামে এক জেএমবি সদস্যকে গ্রেপ্তার করে ভারতীয় পুলিশ। গতবছর বুদ্ধ গয়ায় বিস্ফোরণের অন্যতম অভিযুক্ত এই আরিফুল।

এক গোয়েন্দা কর্মকর্তা জানান, এই বিস্ফোরণ ঘটানোর আগে গ্রেপ্তার হওয়া ব্যক্তিরা ভারতের আসামের চিরাঙ জেলায় স্থাপিত একটি জঙ্গি প্রশিক্ষণ শিবিরে প্রশিক্ষণ নেয়ার কথা স্বীকার করে।

গত বছরের জুলাইতে যুক্তরাষ্ট্রের কেন্দ্রীয় তদন্ত সংস্থা (এফবিআই) পশ্চিমবঙ্গের অপরাধ তদন্ত বিভাগের (সিআইডি) হাতে বর্ধমান স্টেশনে একটি ট্রেন থেকে গ্রেপ্তার আইএস-জেএমবির সদস্য মোহাম্মদ মুসিরউদ্দিন ওরফে মুসার বিষয়ে তদন্ত করে।

মুসা দীর্ঘদিন ভারতের তামিলনাড়ু রাজ্যের তিরুপুর জেলায় আত্মগোপনে ছিল। গ্রেপ্তারের পর সে জানায়, জেএমবির নেতা আমজাদ শেখের সঙ্গে তার সংশ্লিষ্টতা রয়েছে। ২০১৪ সালে খাগড়াগড়ে জোড়া বিস্ফোরণের সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে এই আমজাদ শেখকে গ্রেপ্তার করা হয়।

টাইমস অব ইন্ডিয়া প্রতিবেদনে জানিয়েছে, তিন বছর আগে পশ্চিমবঙ্গের বিভিন্ন জেলায় জেএমবির স্থানীয় স্লিপার সেল তরুণদেরকে তাদের সংগঠনে যোগদানের আহ্বান জানিয়ে পোস্টারিং করেছিল।